ফারহানা খানম | চাহিদা চেনে বোঝাপড়ার

ফারহানা খানম

■ চাহিদা চেনে বোঝাপড়ার ঘর



নীল আর নীলকন্ঠ এক হয়ে আছে বোধে
বিদ্রুপ করে ক্রমশ দূরে সরে শীতের আয়েসী রোদ
এ যেন উত্তর না মেলা এক সরল অঙ্ক।

বিকেলের ট্রেন মিস করে অপেক্ষমান যাত্রী ভাবছেন
সন্ধে আর রাতের কতটুকুই বা ফারাক!
জীবনতো বাঁধা পড়ে আছে সকাল থেকে সন্ধ্যের অভিধানে
তবু বিভোর চোখে শীর্ণ, দীর্ঘ হরেক স্বপ্ন।

আহা! স্বপ্ন
সুনসান স্টেশনে কিছু মানুষ অঘোরে ঘুমোয়
কি দেখে স্বপ্নে? কটা ভাত একটি নতুন কাপড়
পাশেই কটা কুকুর ইতস্তত ঘোরে খাবারের খোঁজে
আমি প্রাণশোক মেপে অমিল করতে চাই পারিনা।

পাশেই জলাশয়
ছেলেবেলার বেতস ফলের বুনো গন্ধ বুকে নিয়ে
আমি জলের কাছে যাই
যেন বয়ে এনেছি দুরন্ত শৈশব!
দেখি জলের ঘূর্ণিতে পানকৌড়ির ডুব সাঁতারে
আহত মীনের আহজারি
সব মিলে ত্রিমাত্রিক জট।

তুমি প্রায়ই বল পাথুরে মাটিতে জাগবেনা অংকুর
যতই ঢালো জল
সে আমিও জানি উপেক্ষায় টেকেনা সম্পর্ক
তবু রাত গভীর হলে
শিশিরের জলে গলে গলে কখনো জোৎস্ন্যা কখনো বা আধাঁর নামে
নির্জনতার ডানায় অলক্ষে জড়িয়ে থাকে রঙ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সুচিন্তিত মতামত দিন

নবীনতর পূর্বতন