x

প্রকাশিত ৯৬তম সংকলন

শব্দের মিছিল শুরু থেকেই মানুষের কথা তুলে ধরতে চেয়েছে, মানুষের কথা বলতে চেয়েছে। সাহিত্যচর্চার পরিধির দলাদলি ও তেল-মারামারির বাইরে থেকে তুলে আনতে চেয়েছে অক্ষরকর্মীদের নিজস্বতা। তাই মিছিল নিজেও এক নিজস্বতা অর্জন করতে পেরেছে, যা আমাদের সম্পদ।

সমাজ-সচেতন প্রকাশ মাধ্যম হিসেবে শব্দের মিছিল   প্রথম থেকেই নানা অন্যায়, অবিচার, অসঙ্গতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছে। এই বর্ষপূর্তিতে এসেও, সেই প্রয়োজন কমছে না। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরবর্তী বিভিন্ন হিংসাত্মক কাণ্ড আমাদের যথারীতি উদ্বিগ্ন করছে। যেখানে বিরোধী দলের হয়ে কাজ করা বা বিরোধী দলকে সমর্থন করার অধিকার এখনও নিরাপদ নয়, সেখানে যে গণতন্ত্র আসলে একটি শব্দের বেশি কিছু নয়, সেকথা ভাবলে দুঃখিত হতেই হয়। ...

চলুন মিছিলে 🔴

চিন্ময় ঘোষ

sobdermichil | জানুয়ারী ৩১, ২০২১ |
শব্দের মিছিল

■ নির্লজ্জ


যে রঙ তোমার পছন্দের না
সুযোগ পেয়েই ঘ্যাচাং ফুঃ!
তখন তোমার সবটুকুতেই ফিলগুড
সর্বময় অধিষ্ঠাত্রীর দেয়ালা সুখ
তার গন্ধ এমন ম' ম'
চারপাশে সব মধুমক্ষির ভন্ ভন্ ভিড় চ্যালা-চামুণ্ডা অতি তৎপর​
জুটলো কত চাটুকার আর মোসাহেবি চাকরবাকর
ফটাং ফটাং চলার ফ্যাশন তোমার কেতা
কত কেলো-কেষ্ট-বিষ্টু-কানকাটাদের​
হিল্লে হলো
একে ধর ওকে ছাঁট, বেগরবাই
করলে পরেই টুসকি মেরে দে উড়িয়ে!​
পা চাঁটছে কতো কুকুর​
আদেখলা সেয়ানাঘুঘু উচ্ছিষ্টের ভাগ পাবে তাই পায়ের কাছে করছে ঘুরঘুর
হারাম খেকো আরাম-বিরাম সুখের মোহে​
জুটলো যত খচ্চর আর কিছু গাধা​
ট্যাঁ ফু আর কেউ করেনা এখন তারা​
কিন্তু দ্যাখো, লুটতরাজের নেশার ঘোরে
খেই হারিয়ে যা-ই বলছো​
এখন কেউ আর শুনছেনা তা,ঘটি বাটি​
সবই তোমার যায়রে বুঝি!​
সুযোগমতো ঢঙয়ের খেলার সঙটি সাজো
তোমার খাপে যথাযথ মানানসই তা
শালীনতা শিষ্টাচারের পাঁচিল ভেঙ্গে​
ভিক্ষাপাত্র হাতে নিয়ে​
নেমে এলে সুযোগমতোই​
পিছন ফিরে দেখলেই না​ ​
আবালবৃদ্ধ অগনিত মুখের ভিড়ে​
চোখের জলে ধুয়ে যাচ্ছে এক চেতনা​
ভেসে যাচ্ছে প্রিয়তম একটি মানুষ​
স্বভাবে ছিল তোমার রঙের বড্ড অমিল
তাকেই তুমি নিতান্ত এক পণ্য ভেবে​
বাজার করতে নেমে পড়লে!
​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ 

■ পত্রপুট

মুখের কথা মুখ ফস্কেই বেরিয়ে যায়​
ঘাট পেরিয়ে ওপার গেলেই​
সে সব কথা ফুস মন্তর
কে আর বলো পড়ছে গেরোয়
কথা কি আর কথায় থাকে​
নেহাতই এক পত্রপুটের বর্ণচোরা মুখের গড়ন ভাসতে ভাসতে আকাশ ভ্রমণ​
রোদ বৃষ্টি ধুলাবালির বছর কয়েক গেরস্থালি
খেলতে খেলতেই কথারা সব তুলট কাগজ​
ভাঙাচোরা অক্ষর সব ন্যাতানো খড়
সময়টি যেই ফুরিয়ে এলো
দরজাখানায় টোকা দিল হুঁশবাবাজি​
বাঁশি তো সেই বেজেই গেলো পরের খেলার​
আবার মাঠে নামতে হবে বদলি ঢঙে​
নতুন ঠমক​
গায়ের জামা পাল্টে ফেলো
সুতলি নতুন, পুরোনো সেই খড়কাঠামো
অন্য সাজে আবার নতুন​
রঙবাহারি পত্রপুটের নতুন গমক

এমন খেলা বুঝবে বল কোন আহম্মক!
​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ 

■ সূর্যস্নান

দুচোখে জড়ানো ঘুম​
রাতের উপান্তে জ্বলে শুকতারা​ ​
স্থির চোখে চেয়ে চেয়ে ভোরকে সে ডাকে​
আমার যে যত সুখ শামুকের খোলে
জড়তার জাল ছিঁড়ে
নিষ্পাপ মুখখানি তাইতো খুঁজিনা
এভাবেই ভোর আসে রোজ, ফিরেও সে যায়​
দ্বিধাহীন খুলে দেয় আলোর মুকুর​ ​
রাত জুড়ে জমে থাকা পিচ্ছিল ভয়
লালিমায় ধুয়ে যাক সূর্য সকালে​
কে আছো, ভাঙাও ঘুম সজোর আঘাতে
এসো, একসঙ্গে করি সূর্যস্নান
ভোরের প্রথম রঙে​
আগামীর দিন হোক রাঙা।

Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন


বিজ্ঞপ্তি
■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.