x

প্রকাশিত | ৯২ তম মিছিল

মূল্যায়ন অর্থাৎ ইংরেজিতে গালভরে আমরা যাকে বলি ইভ্যালুয়েশন।

মানব জীবনের প্রতিটি স্তরেই এই শব্দটি অবিচ্ছেদ্য এবং তার চলমান প্রক্রিয়া। আমরা জানি পাঠক্রম বা সমাজ প্রবাহিত শিক্ষা দীক্ষার মধ্য দিয়েই প্রতিটি মানুষের মধ্যেই গঠিত হতে থাকে বহুবিদ গুন, মেধা, বোধ বুদ্ধি, ব্যবহার, কর্মদক্ষতা ইত্যাদি। এর সামগ্রিক বিশ্লেষণ বা পর্যালোচনা থেকেই এক মানুষ অপর মানুষের প্রতি যে সিদ্ধান্তে বা বিশ্বাসে উপনীত হয়, তাই মূল্যায়ন।

স্বাভাবিক ভাবে, মানব জীবনে মূল্যায়নের এর প্রভাব অনস্বীকার্য। একে উপহাস, অবহেলা, বিদ্রুপ করা অর্থই - বিপরীত মানুষের ন্যায় নীতি কর্তব্য - কর্ম কে উপেক্ষা করা বা অবমূল্যায়ন করা। যা ভয়ঙ্কর। এবং এটাই ঘটেই চলেছে -

চলুন মিছিলে 🔴

সোমবার, নভেম্বর ৩০, ২০২০

■ পল্লববরন পাল | নির্ধারিত বোধিনির্বাণ

sobdermichil | নভেম্বর ৩০, ২০২০ | | মিছিলে স্বাগত

■ পল্লববরন পাল |  নির্ধারিত বোধিনির্বাণ

এই সেই চন্দনগড়, যেখানে ঠাঠা বনস্পতির চাঁদোয়া-শরীর জুড়ে অসংখ্য তারা-রোদের চুমকি, অন্ধকারে রমণীসরোবর অবগাহনে শিরদাঁড়া বেয়ে হিহি শীতে নেমে যায় দেশি বিদেশি বৈষ্ণব শব্দাবলী, আর সৌহার্দ্য রাখতে ইলিয়ট থেকে সুধীন্দত্ত নরমে গরমে আপ্রাণ ফেভিকলে বাদুড় থাকেন চিলেকোঠা টু রাজপথ ভায়া ওয়াশ্রুম 

ট্র্যাফিকবাতি আদিগন্ত স্বাধীনচেতা জনগণতান্ত্রিক অথচ সম্মোহ উলঙ্গ সবুজ, তাই যেখানেসেখানে তৎসমীহ হোঁচট-পালট খেতে খেতে হোরেশিওর বন্ধুহাতের ওম নিঃশ্বাসে আহিরভৈরবীকে খুঁজি – খুঁজেই চলি – অনন্ত উপন্যাস – এক এক পাতায় সহসা ভেদাম্ল বমির মতো উঠে আসে চারশো চুয়াল্লিশটা কাটা শসার সন্ত্রাসউল্লাস – ধমণীময় দাবানলের নীলবাতি ওঁয়াওঁয়া দৌড়োদৌড়ি – ওয়াশ্রুম থেকে ছিটকে সটান চিলেকোঠা – চামড়ার ক্ষতস্থানগুলি তারা-রোদে সেঁকে নিই রুটিস্টাইলে – এপাশ ওপাশ – পরমান্নস্নান সেরে তারপর ঘুমিয়ে পড়ি বোধি-বনস্পতির সুজাতা প্রযত্নে - এসি বেডরুমের লাবডুব আরামশয্যায় – বুদ্ধের মতো – বাঁহৃদয় চেপে – কাত হয়ে

নির্বাণই কি দাড়ি? আজানু ওলনরেখা নির্মাণ? টু-বি-অর-নট-টু-বির নিবিড় নহবতে দমকা যবনিকার সহবৎ শিক্ষা? সম্পূর্ণচ্ছেদ? 

আর দশটার মতো এ গল্পের নটেগাছ কিন্তু এখানেই মুড়োয়নি – শ্যামল সিগন্যালের আশকারায় বেমক্কা ইলিয়ট-সুধীন্দত্তেরা উগ্রপন্থী অস্ত্রশস্ত্র হাতে এবার রাজপথ আগলে এসে দাঁড়ালো – সংবিধানের কপালশিরায় ঠাণ্ডা ইস্পাত নল ঠেকিয়ে লাশের নিঃশর্ত মালিকানা আদায় করে রেকারিঙ্‌ বিজয়ী-লাফে পৌঁছে গেলো নিজস্ব পাঁচিলঘেরা চন্দনবনে – 

লাশ উঠলো চোখ-ধোওয়া সম্মোহিত ইতিহাসের সুপ্রিম চিতাচুল্লিতে

জ্বলন্ত লাশ-চোখে এইবার দেখতে পাচ্ছি – কাচস্বচ্ছ -চন্দনধোঁয়ার ম-ম গন্ধে শিকারী চিতার মতো হিংস্র নৈঃশব্দে আস্তে আস্তে পবিত্রতর ভস্মস্থাপত্যের মহান নির্মিতি সংজ্ঞা হয়ে উঠছে আমার স্তন্যদায়ী মাতৃভূমি  

Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

�� পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ শব্দের মিছিলের সর্বশেষ আপডেট পেতে, ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.