x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

সোমবার, নভেম্বর ৩০, ২০২০

ঐশী​ দত্ত

sobdermichil | নভেম্বর ৩০, ২০২০ | | মিছিলে স্বাগত
ঐশী​ দত্ত

■ প্রেম​ প্রত্যাবর্তন


আরো​ একবার​ হামাগুড়ি​ দিয়ে
গোপন​ গঙ্গা
অস্তমান​ আলোয়​ স্মৃতির​ রাসলীলা

যেখানে​ সংগোপন​ ছিল​ পথের​ দাবি
ভোরের​ শ্বাসমূল
ভূ-তলে​ পড়ে​ থাকা​ যে​ শুভ্রতা
বিকেলের​ ঢেউগুলোকে​ জড়িয়ে
উড়িয়ে​ দিয়েছে​ ঝরাপাতা
দুপুর​ রোদের​ হু​ হু​ ক্রন্দন
ছলছল​ দৃষ্টি​ কাশফুল​ সময়;

এইসব​ মনে​ রাখার​ একেকটা​ গোপন​ খুলে​ পড়ে
যদি 
ভেসে​ যায়​ আপাদমস্তক,
হাওয়ার​ বুকে​ শব্দ​ ভিজে​ ওঠে
যদি
বলে​ এইসব​ সময়ের​ সাহায্য​ প্রার্থনা,​ প্রেম​ প্রস্থান;

হে​ প্রিয়তম​ বৃক্ষ,
তোমার​ ডালপালার​ ভেতর​ দিয়ে
তবে​ কি​ ​ আবার​ প্রেম​ প্রত্যাবর্তন,​ আদুরে​ শীতকাল?
চলতে​ চলতে​ বাঁচা?
মৃত্যুর​ চোখ​ পেরিয়ে​ দূরে​ দেখা​ আমাদের​ জন্মসকাল।


■ পিপাসা

দীর্ঘশ্বাসের​ সমুদ্রে​ পিপাসা​ এত​ ঘন​ যেন,
মাঝরাতের​ অন্ধকারে​ খুঁজছি​ এক​ আলোকবর্ষ
এক​ প্রভাতকন্যার​ ভুয়ো​ সন্ধ্যায়
পরিপাটি

​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ এক

​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ আদি

​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ দিগন্ত

অচেনা​ ধুলোর​ হামাগুড়ি​ চেনা​ ঘ্রাণ
এক​ ময়মনসিংহের​ ছেলের​ চোখে​ ভরপুর​ ব্রহ্মপুত্র​ জল
শালিকডাকা​ দুপুর,​ বিদায়​ জবাকাহিনী
আদরভরা​ শেকড়ের​ ছাদ;

যেন​ তোমার​ উচ্চারণের​ জ্বলজ্বল​ শব্দ
তলপেট​ বিকেল​ সবুজ​ ঘাসফুল
নরম​ দ্বিধায়​ ঘাসের​ আঙুল
লাজুক​ স্টেশন​ সন্ধ্যা​ ছয়টা-
আশাবাদী​ তিস্তা​ এক্সপ্রেস

এইসব​ শুনে-শুনেই​ বেড়ে​ ওঠছে​ ​ শাদা​ আগুন
এক​ বাবার​ হাহাকার
জানলার​ কাঁচে​ এক​ শুকনো​ মুখ
বিমুগ্ধ

​ ​ ​ ​   প্রেমে

​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​   এক

​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​   অন্তর

পিপাসায়,​ কেউ​ নির্জন​ নয়​ নিঃসঙ্গ।


■ বাল্যপ্রেমিক

উপেক্ষা​ করার​ আগেই

কে​ জানে​ কীভাবে​ তুমি​ লিপিবদ্ধ​ করেছ
ভাঙনের​ সুর​ !

জীবন​ থেকে​ যা​ কিছু​ সম্ভব
যা​ কিছু​ গা-ঘেষা

সমস্ত​ কিছু​ ফুরিয়ে​ আসছে...
ফুরিয়ে​ আসছে​ আগামীকাল..

ফুরিয়ে​ আসছে​ সামলে​ রাখা
বুকের​ মধ্যে​ বুক
হাতের​ সঙ্গ​ পায়ের​ সঙ্গ
পবিত্র​ অভিমান
একটা​ সৌন্দর্য
স্বস্তির​ ভেতর​ আদান​ প্রদান।

হে​ বাল্য​ প্রেমিক,
তুমিই​ আমার​ ব্যর্থ​ অনুসন্ধান​ !

Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.