সুমনা পাল ভট্টাচার্য

সুমনা পাল ভট্টাচার্য

ভরাডুবি


বুকের ঠিক মাঝবরাবর একটা পেরেক ফুটে আছে...
যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে একসময় বরফের মত হিম হয়ে গেছে কাটাকুটির ঘর,
ওই স্থির তামাটে রক্তের জঙ তালুময় মেখে শিরায় আঁশটে পিছুটান।

এই মৌনতার মাঝে বুকের ডিঙি বেয়ে স্বপ্নের মত প্রেমের ঘাটে গিয়ে দাঁড়াই..
চেয়ে চেয়ে দেখি কতো নৌকাডুবি, কতো পারাপার, কতোই না জোয়ার- ভাঁটা..
একলা হবার গভীরে এই যে তীক্ষ্ণ সুখ, তা জিভের ডগায় চেখে ধাতব গন্ধ চিনে রাখি।
সঞ্চিত অভিমান সময়ের বয়ামে ভরে তাপ শুষে নেয় চার আঙুলের কপাল...

এমন সময়, প্রচন্ড ভার ঠেলে আকাশের দিকে দুহাত তুলে বৃষ্টির আজান শুনতে চায় মন।
প্যাস্টেল রঙ হাতড়ে আঁকতে চায় হলুদ, গোলাপী পালক।
আমার কেয়াপাতার নৌকো আজ আর কোনো কূলে চেনে না,
সে চায় তুফান...
আস্ত একটা ভরাডুবি।।



◆ লেখক পরিচিতি

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সুচিন্তিত মতামত দিন

নবীনতর পূর্বতন