Header Ads

Breaking News
recent

সুদীপ্ত বিশ্বাস

সুদীপ্ত বিশ্বাস

পাতকী

এসেছে প্রেমিক যুবা প্রেম ভেঙে গেলে
পাষণ্ড পুলিশ থেকে ডাকাতের দল
সব্বাই এসেছে আর ঢেলে গেছে বিষ।
ধোয়া তুলসী পাতা যে সেও তো এসেছে
এঁটো পাতে চেটেপুটে খেয়ে চলে গেছে।
এসেছে উকিল বাবু এসেছে সন্ন্যাসী
মুখ পাল্টাতে এসেছে গৃহস্ত মানুষ।
এসছে জুতো বিক্রেতা, জুতো কেনে যারা
তারাও এসেছে সব গাঁ উজাড় করে।
কি নেবে গো দেহ থেকে? দেহে কীইবা আছে?
নর দেহে যত পাপ সব মুছে নিয়ে
রক্ত মাংস বিষ মেখে অন্তরে অন্তরে
ধর্ষিত হয়েছি রাতে অযুত বছর।
সমস্ত শরীর দিয়ে বিষ শুষে নিয়ে
অপবিত্র তবু আমি, কুলটা, পাতকী!


বাক্যহারা

রাতদুপুরে আসছে উড়ে একটা দুটো স্বপ্ন পাখি
হারানো সেই সোনালি দিন, এখন একে কোথায় রাখি!
আবছা আলোয় চমকে দেখি সেই যে তুমি মেঘের মেয়ে
কলসি নিয়ে দুপুরবেলা একটু দুলে ফিরছ নেয়ে
হাল্কা রঙা কল্কা শাড়ি, দুলছে বেণী ইচ্ছেমত
স্তব্ধ চোখে থমকে থাকি, আরে এটাই সেই ছবি তো!
সেই যে যেটা হারিয়ে গেছে একটুখানি অসাবধানে
আজ পুরোটা রাখব ধরে, আজকে লিখে রাখব প্রাণে।
গভীর রাতে আবছা আলো, হতেও পারে চোখের ভুল
বলো না তুমি সত্যি করে,তুমি কি সেই টগরফুল?
যাচ্ছে খুলে স্মৃতির পাতা,ডাগর চোখে দেখছি খালি
অরফিউস ও ইউরিডিসি, বুদ্ধদেব ও আম্রপালি...
স্বর্গ বুঝি আসল নেমে আবছা আলো ঘরের কোণে
না বলা কথা অনেক ছিল পড়ছে না যে কিছুই মনে।
হঠাৎ দেখি কাঁদছ তুমি, তোমার চোখে অশ্রুধারা
তোমার মুখে আমার ছায়া আনন্দেতে বাক্যহারা...


 


কোন মন্তব্য নেই:

সুচিন্তিত মতামত দিন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.