Header Ads

Breaking News
recent

শঙ্খসাথি পাল

আত্মসম্মান

লকডাউনের সময়ে বাড়ি ফিরেছিল পায়ে হেঁটে। সাতদিন সমানে হেঁটে তবে গ্রামে পৌঁছাতে পেরেছিল আফিফা। ভাবে নি কখনও আবার আম্মু -ভাইয়ার মুখগুলো দেখতে পাবে। আসলে তখন কী করছে কেন করছে কিছুই ঠিকঠাক বুঝতে পারে নি। লকডাউনের ক'দিন পরই ওদের কারখানার মালিক বলে দিল, কবে আবার কাজ শুরু হবে তার ঠিক নেই — ততদিন মাইনাও জুটবে না। সবাই তখন পাগলের মত করতে লাগল। আফিফাও তো ঘর বাড়ি, আম্মু - ভাইজানকে ছেড়ে কাজে গিয়েছিল — বেশি টাকা পাবে বলে। এখন যদি মাইনা না পায়, থেকে কী হবে? আর চলবে বা কী করে?

তাই আফিফাও সবার সাথে বাড়ির পথ ধরল পায়ে হেঁটেই। সে যে কি কষ্ট — বলে বোঝানো যাবে না। কতজন অসুস্থ হয়ে পড়ল, কয়েক জন তো মরেও গেল রাস্তাতেই। আফিফা তো তাও ঘর অবধি আসতে পেরেছিল ।

কিন্তু এখন কী করবে? আম্মুর রান্নার বাড়িতে কাজে নিচ্ছে না। এক পয়সা রোজগার নেই — কী করে দিন তিনজনার চালাতে পারবে!

মাধব মন্ডলের কাছে এসেছে আজ তাই আফিফা। ওঁর তো অনেকরকম ব্যবসা — যদি কোনো কাজ জুটে যায়।

মাধব মন্ডলের আড়ত থেকে বেরিয়ে ইস্তক গা ঘিনঘিন করছে আফিফার। ছি! ছি! কি নোংরা — যেন চোখ দিয়ে গিলে খাচ্ছিল ওকে। আজ রাতে আবার অফিসে দেখা করতে বলেছে। না খেতে পেয়ে মরে গেলেও অমন লোকের কাছে নিজেকে বিকোতে পারবে না আফিফা — কিছুতেই না।

মাঝে একটা সপ্তাহ কেটে গেছে। কোনো কাজ জোটে নি। সরকারের রেশন আর ঘরের সামনের এক চিলতে জায়গায় হওয়া সব্জি দিয়ে কোনো মতে দিন চলছে।আম্মুর বুকের ব্যথাটা বেড়েছে — কী যে করব এখন? তবে কী মাধব মন্ডলের কাছেই শরীর বেচতে হবে এবার!

"আপা, আপা — এই নাও" — 

একটা কুড়ি টাকার নোট এগিয়ে দেয় আফিফাকে ওর ভাই।

"কোথায় পেলে তুমি এই টাকা?"

"ঐ তো নারান-দা, আকাশ-দা, ফইজুল-ভাইয়া আছে না? ওরাই দিল"

"দিল, আর তুমি নিয়ে নিলে? লজ্জা করল না ভিক্ষা নিতে?", আফিফা চিৎকার করে রাগে-দুঃখে ।

"আমি তো এমনি এমনি টাকা নিই নি আপা। দুটো ফেলাট-বাড়িতে মাসকাবারি মাল পৌঁছে দিয়ে এসেছি দোকান থেকে। দাদারা বলেছে, এমন অনেক কাজ আছে — করলে পয়সা দেবে। আমি তোমার কথাও বলেছি আপা। তোমাকেও কাজের ব্যবস্থা করে দেবে বলেছে ওরা। ।" সজল চোখে উত্তর দেয় আফিফার ভাই।

ভাইকে বুকে জড়িয়ে ধরে হাউহাউ করে কেঁদে ফেলে আফিফা। ছোট্ট ভাইটা বড় হয়ে গেছে।আত্মসম্মান খুইয়ে হাত পেতে না — খেটে রোজগার করতে শিখেছে।

নাহ, আর কোনো দ্বিধা নেই, সংশয় নেই — ঠিক রাত পেরিয়ে দিন আসবে।​


কোন মন্তব্য নেই:

সুচিন্তিত মতামত দিন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.