x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

বুধবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০

কৃষ্ণা রায়

5 | সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০ | | মিছিলে স্বাগত
কৃষ্ণা রায়

 

হেমন্ত পারাবার

কতযুগ ধরে কেন যে চেয়েছি
গাঢ বসন্ত কাল ,​
খয়েরি পাতায় সুখেতে জড়ানো​
​প্রাচীন গাছের ডাল।​
​তৃষ্ণার চোখ চেটে চেটে খাবে​
গোধূলির মেটে আলো,​
নদীজল মাখে বিষাদের তাপ -
ভরা রাত্রির কালো।​

চেয়েছি যখন শীতের দুপুর​
ঘুঘু চরা বুনো ছায়ায়,​
হাওয়ায় ওড়ানো শুকনো রোদের
​কষ্ট মাখানো মায়ায়।
​চুমুকে চুমুকে দুঃখের স্রোত​
ওষ্ঠ করেছে পান​
ভুলতে চেযেও কেন ভুলে গেছে​
মধুমাস ভরা গান।​

জীবনে এখন পঞ্চম ঋতু
​প্রাচীন পাতারা ঝরে
​ঘরে ফিরে গেছে জলপাখি দল​
কোলাহল সারা করে।​
​ছাদের কিনারে অভিসার বেলা
​থমকে গেছে সে কবে​
গোধূলির আলো ক্ষীণ এক স্মৃতি​
ফেলে গেছে কিছু তবে?

ষষ্ঠ ঋতুটি অধরাই থাকে​
তারার আলোর বেশে
​কে যেন আসবে বলে চলে গেছে​
​পাতা ঝরা কাল শেষে।​
প্রতীক্ষা দিন গাঢ় থেকে গাঢ়​
অপরাহ্ণের পারে-​
​ অনন্ত -প্রেম , শুদ্ধ ভিখারি​
হেমন্ত- পারাবারে।



■ পরিচিতি
Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.