x

প্রকাশিত | ৯২ তম মিছিল

মূল্যায়ন অর্থাৎ ইংরেজিতে গালভরে আমরা যাকে বলি ইভ্যালুয়েশন।

মানব জীবনের প্রতিটি স্তরেই এই শব্দটি অবিচ্ছেদ্য এবং তার চলমান প্রক্রিয়া। আমরা জানি পাঠক্রম বা সমাজ প্রবাহিত শিক্ষা দীক্ষার মধ্য দিয়েই প্রতিটি মানুষের মধ্যেই গঠিত হতে থাকে বহুবিদ গুন, মেধা, বোধ বুদ্ধি, ব্যবহার, কর্মদক্ষতা ইত্যাদি। এর সামগ্রিক বিশ্লেষণ বা পর্যালোচনা থেকেই এক মানুষ অপর মানুষের প্রতি যে সিদ্ধান্তে বা বিশ্বাসে উপনীত হয়, তাই মূল্যায়ন।

স্বাভাবিক ভাবে, মানব জীবনে মূল্যায়নের এর প্রভাব অনস্বীকার্য। একে উপহাস, অবহেলা, বিদ্রুপ করা অর্থই - বিপরীত মানুষের ন্যায় নীতি কর্তব্য - কর্ম কে উপেক্ষা করা বা অবমূল্যায়ন করা। যা ভয়ঙ্কর। এবং এটাই ঘটেই চলেছে -

চলুন মিছিলে 🔴

শুক্রবার, মে ১৫, ২০২০

সীমন্তিনী সাহা

sobdermichil | মে ১৫, ২০২০ | | মিছিলে স্বাগত
সীমন্তিনী সাহা

বন্দী 
কবিতারোগীর এনামেল

১।

পৃথিবীকে যতখানি আপন করেছো ঠিক ততখানি 'আপনারবোধ' জন্মাতে পেরেছো কি? রাস্তা খোলা। ঘাট ডাকছে, মাঠ ডাকছে। অথচ নিজেকে ডেকেছো কি?

২।

করোনা এক আশ্চর্য নেমেসিস। জোড়া লাগা হাড়ে কেঁদে ওঠে ফোটাভাতের ধানের শীষ; পোকা লাগা হাড়ে নেচে ওঠে থলি ভরা জারজ বিষ। সীসে ঢাকা বিষ কবিতা-বাতিক পেনের নিব ভাঙা দৃশ...

৩।

অদ্ভুত আঁধারে ডুবেছো বলে ঠিক যতবার মাউথঅরগান বাজিয়েছিলে ততবারই অর্গানিক মাউথ তোমাকে এসে চুমো দেয়। লাঙল পেয়েছো, চাষ করেছো; গরু পেয়েছো, বাঁট চুঁইয়েছো। হাত পেয়েছো, মুড়িয়ে দিয়েছো। কম্বল ঢাকা পথ পেয়েছো, ব্র্যাকেটের দাড়িমুখে জীবনের দাঁড়ি টেনেছো। এত বাতিক— বেইমানি বদনামির ফুলস্টপ, ফাঁদে পরা ঘুঘুর কাঁধে আজন্ম পিতার ক্রিশক্রশ।

৪।

কবিতা লিখেছো, রোগী হয়েছো। পাশা খেলেছো, ভোগী হয়েছো। ডাঁসা চাঁদ গিলে যোগী হয়েছো। কবিতা, পাশা আর ডাঁসা চাঁদ যতটা সমানুপাতে চলে ততটা পরিধি জুড়েই তোমার লুডোর ছক্কা।

ভাইসাব, মনে রেখো জীবন কিন্তু একটা আস্ত পুটে ভরা, হজহীন খোঁড়া পা'এর মক্কা।


Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

�� পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ শব্দের মিছিলের সর্বশেষ আপডেট পেতে, ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.