x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

শুক্রবার, মে ১৫, ২০২০

সীমন্তিনী সাহা

sobdermichil | মে ১৫, ২০২০ |
সীমন্তিনী সাহা

বন্দী 
কবিতারোগীর এনামেল

১।

পৃথিবীকে যতখানি আপন করেছো ঠিক ততখানি 'আপনারবোধ' জন্মাতে পেরেছো কি? রাস্তা খোলা। ঘাট ডাকছে, মাঠ ডাকছে। অথচ নিজেকে ডেকেছো কি?

২।

করোনা এক আশ্চর্য নেমেসিস। জোড়া লাগা হাড়ে কেঁদে ওঠে ফোটাভাতের ধানের শীষ; পোকা লাগা হাড়ে নেচে ওঠে থলি ভরা জারজ বিষ। সীসে ঢাকা বিষ কবিতা-বাতিক পেনের নিব ভাঙা দৃশ...

৩।

অদ্ভুত আঁধারে ডুবেছো বলে ঠিক যতবার মাউথঅরগান বাজিয়েছিলে ততবারই অর্গানিক মাউথ তোমাকে এসে চুমো দেয়। লাঙল পেয়েছো, চাষ করেছো; গরু পেয়েছো, বাঁট চুঁইয়েছো। হাত পেয়েছো, মুড়িয়ে দিয়েছো। কম্বল ঢাকা পথ পেয়েছো, ব্র্যাকেটের দাড়িমুখে জীবনের দাঁড়ি টেনেছো। এত বাতিক— বেইমানি বদনামির ফুলস্টপ, ফাঁদে পরা ঘুঘুর কাঁধে আজন্ম পিতার ক্রিশক্রশ।

৪।

কবিতা লিখেছো, রোগী হয়েছো। পাশা খেলেছো, ভোগী হয়েছো। ডাঁসা চাঁদ গিলে যোগী হয়েছো। কবিতা, পাশা আর ডাঁসা চাঁদ যতটা সমানুপাতে চলে ততটা পরিধি জুড়েই তোমার লুডোর ছক্কা।

ভাইসাব, মনে রেখো জীবন কিন্তু একটা আস্ত পুটে ভরা, হজহীন খোঁড়া পা'এর মক্কা।


Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.