x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

বৃহস্পতিবার, মে ২১, ২০২০

অভিজিৎ দাসকর্মকার

sobdermichil | মে ২১, ২০২০ |
 অভিজিৎ দাসকর্মকার

সকাল ৫:৩৭ মিনিট

আমি আগেই বলেছি, আমাদের ফেলে আসা কবিতায়​
এখনও বিজোড় সংখ্যার যোগফল ; অথচ
​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ ​ কাউকেই দ্যাখা যাচ্ছে না______

অক্টোবরের টানা বারান্দায় দাঁড়িয়ে ফ্রাস্ট্রেশনের সাথে কথা বলি।​
বাঁ-হাতের ডাইরিতে ৫টি ভেজা দিনের কুড়মুড়ে নস্টালজিয়া,
আর
মাঝে মাঝেই ঢুকে পড়ছিল দুপুরে চৈত্রের ব্রেল-স্বপ্ন...

অদ্ভুত ভাবে গড়-গভীরতা মাপছিল সংখ্যাগুলির দ্বিধাহীন পূর্ণচ্ছেদ, এবং
​ ​ ​ ১৮টি নির্বাক সিদ্ধান্তের ঈশ্বরকণা_____


দুপুর ১:৩৭​

___এরপর থেকেই ছায়ারাও বাবার আচরণে
বৃক্ষের নীচে দাঁড়ায়———

বিস্তীর্ণ কাঁসাইয়ে কৃষ্ণগহ্বর, নদীর সাথে মেরিনব্লু-র করিডোরে​ শুয়ে আছে স্নানঘাটগুলি।​
কাব্যের স্পষ্ট একাকিত্ব,আর-
নাব্যতার বৈধব্য নিয়েছে অপেক্ষমান স্থায়ীত্বক্ষণ।​

মহড়া সাজাও, নাহলে কিছুতেই প্রামাণ করা যাবে না____

আজ কিছুটা আলতা পরতে চায় ইচ্ছেরা,
আজ একটু হেমলক খেতে চায় অনিচ্ছেরা,
আজ অনেকবড়ো সোসাইটির সক্রেটিস হতে চায় অগস্ত্য-যাত্রা...


*

Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.