x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৪, ২০২০

স্বপন পাল

sobdermichil | এপ্রিল ১৪, ২০২০ |
দিন বদল-২  / স্বপন পাল

দিন বদল-২ 

বুড়োরাও ভেবেছিলো, তারা জয় করেই ফেলেছে  সে রকমই ভেবে বসেছিলো, পাতা ঝরে গেলে বুড়োরা হাসতো, শীতের দিনে আগুন পোহাতে পোহাতে তারা খুব হাসতো, যেন যৌবনের সিঁড়িতে বসে আছে। জল তলে তলে অনেকদূর খেয়ে ফেলেছিল সেই সিঁড়ি, কে না জানে জল শুধু ধুয়েই দেয় না, খায়, খেয়ে নেয়।

বুড়ো বুড়ো গাছগুলো নদীটার ধার ধরে এতোকাল দাঁড়িয়ে থেকেছে, পাখিরাও জানে, নদী তার সেই পার বদলে দিতে চেয়েছে সজ্ঞানে। এখন সে গাছগুলো লুটিয়ে পড়েছে মাথা ঘুরে পাখিরা ছেড়েই গেছে, ভাঙ্গা পার পুড়ছে রোদ্দুরে।

এসব দেখতে কেউ নেই। মানুষেরা বহুদিন ঘরবাড়ি ভেঙ্গে, আলোর স্তম্ভ ভেঙ্গে চলে গেছে, মানুষেরা বহুদিন অচ্ছুৎ বসত ছেড়ে চলে গেছে। খোয়া ওঠা পথ খেঁকিয়ে উঠছে হেঁটে গেলে, পার্কের দোলনা, মেরি-গো-রাউন্ড কাত হয়ে মরচে মাখছে। না-ছাঁটা ঘাসের মাথায় হরেক না জানা ফুল বস্তি-বালিকার মতো ঢলে পড়ছে এ ওর গায়ে, মাকড়সার জালে জল। এখন কেন জানি নদীটাও বড় শান্ত স্বচ্ছ হয়ে গেছে উৎপাতের মতো বুড়োর দঙ্গল হাসতে আসেনা, আসেনা হাসতে আর এদিকে সকালে।

Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.