x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৪, ২০২০

মৌমিতা ঘোষ

sobdermichil | এপ্রিল ১৪, ২০২০ |
কোয়ারেনটাইন  / মৌমিতা ঘোষ

কোয়ারেনটাইন 

আজকে ছিল গুমোট, হঠাৎ হাওয়ার ছোটাছুটি
কানের কাছে তোমার আবেশ, শব্দ কাটাকুটি
ফোন ছুঁয়ে থাক মনের কথা, মন ছুঁয়ে থাক আয়না
নীল ছুটিদের সময় শেষে ঝর্ণা ছোঁয়ার বায়না
করেই যাবো, যতই তোমার ভুরুর দু ভাঁজ গভীর
 যতই তুমি ছদ্ম রাগো, নাছোড়বান্দা আমি।
মিস করেছি। বেশ করেছি। কার কী করার আছে?
সন্ধেবেলা বৃষ্টি এলো পোড়া মনের কাছে।
সঙ্গে এলো টেলিফোন ও, একটুখানি কথা
বৃষ্টি কিম্বা মেঘের মতো ওলোট পালোট ব্যথা।
আমার এখন উঠোন ভরা মেঘের কালো বাড়ি
দেখছো না কি বারান্দাতেই অপেক্ষমান শাড়ি?
ফিরে আসা আদরটুকু জমিয়ে রাখা আছে
শেষদিনে সেই আঁচড় দাগও লুকিয়ে বুকের কাছে
এতোল বেতোল আর্জি জানায়, বড্ড অবুঝ ,জানো
তোমার কাছে আমার চিঠি পৌঁছবে কক্ষণো?
এবার যদি হারিয়ে যাই, ফুরিয়ে যাই তবে
এসব চিঠি মেঘ হয়ে ঠিক জল ঝরিয়ে যাবে।
তুমিও কেঁদো, বসন্ত-ডাক, আকুল কেঁদো অবুঝ
আমার চিঠি শেষ না হওয়া প্রেমের মতো সবুজ।

সেদিন তুমি দিও নাহয় রঙের গোলা, আলো
চোখের কোণে ভালোবাসার চিকচিকে জল ভালো।

মৌমিতা ঘোষ


Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.