x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৪, ২০২০

হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

sobdermichil | এপ্রিল ১৪, ২০২০ | | মিছিলে স্বাগত
মাটির থালায় ধান / হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

মাটির থালায় ধান

মাটির থালায় যারা ধান এঁকেছিল
আনন্দে মাটি মেখেছিল সারা গায়ে
ধানের বুকে দুধ আসার আনন্দে
তারাই উঠোন গোবরে নিকিয়েছিল
যতদূর গোল হয়েছিল হাতে হাতে
পুরোটাই একটা ভালোবাসার পৃথিবী
ধানের আনন্দে উঠোনে এসে বসেছিল
একটা দুটো তিনটে চারটে চড়ুই
চড়ুইয়ের ঠোঁটে ঠোঁটে যে ধান গল্প লিখেছিল
তার মালিক ছিল বেশ কয়েকটি গাছ
পুবের সূর্যঘর থেকে আলো এসে
খুব একচোট নেচেছিল ধানের উঠোনে
ভাতের গন্ধে বর্ণপরিচয়ের সামনে
কত কত মাথা দুলেছিল একদিন
সাদা ভাতের থালার সামনে
নদীর মতো এসেছিল অবাধ সকাল

তারপর দুপুরেই নেমে এলো এক করাল ছায়া
উঠে এলো এমন কিছু হাত
যাদের বাপ ঠাকুরদাকে পৃথিবীতে
কেউ কোনোদিন কোথাও হাঁটতে দেখে নি
রাতারাতি জমির ক্যানভাসে জমা হলো
                                        অসংখ্য কালো রেখা
আর রক্তের গভীর আঁচড় মাটির গায়ে গায়ে
হাতে হাতে সব ভাত চুরি হয়ে গেল
ভাঙা ফুটো তোবড়ানো থালাগুলো
এমনভাবে ছড়িয়ে ছিল সারা মাঠ জুড়ে
মনে হবে ভারতের ম্যাপটা দিন দুপুরে
সকলের চোখের সামনে কে যেন ছিঁড়ে দিয়েছে।

(C) হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়
Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.