x

আসন্ন সঙ্কলন


যারা নাকি অনন্তকাল মিছিলে হাঁটে, তাদের পা বলে আর বাকি কিছু নেই। নেই বলেই তো পালাতে পারেনা। পারেনা বলেই তারা মাটির কাছাকাছি। মাটি দ্যাখে, মাটি শোনে, গণনা করে মৃৎসুমারী। কেরলের মাটি কতটা কৃষ্ণগৌড়, বাংলার কতটা তুঁতে! কোন শ্মশানে ওরা পুঁতে পালালো কাটা মাসুদের লাশ, কোন গোরেতে ছাই হয়ে গেলো ব্রহ্মচারী বৃন্দাবন। কোথায় বৃষ্টি টা জরুরী এখন, কোথায় জলরাক্ষুসী গিলে খাচ্ছে দুধেগাভিনের ঢাউস পেট। মিছিলে হাঁটা বুর্বক মানুষ সেসবই দেখতে থাকে যেগুলো নাকি দেখা মানা, যেগুলো নাকি শোনা নিষেধ, যেগুলো নাকি বলা পাপ। দেশে পর্ণ ব্যন্ড হল মোটে এইতো ক'টা মাস, সত্য নিষিদ্ধ হয়েছে সেই সত্যযুগ থেকে। ভুখা মিছিল, নাঙ্গা মিছিল, শান্তি মিছিল, উগ্র মিছিল, ধর্ম মিছিল, ভেড়ুয়া মিছিল যাই করি না কেন এই জুলাইয়ের বর্ষা দেখতে দেখতে প্রেমিকের পুংবৃন্ত কিছুতেই আসবে না হে কবিতায়, কল্পনায়... আসতে পারে পৃথিবীর শেষতম মানুষগন্ধ নাকে লাগার ভালোলাগা। mail- submit@sobdermichil.com

ভালোবাসার  আষাঢ় শ্রাবণ

অতিথি সম্পাদনায়

সৌমিতা চট্টরাজ

মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৪, ২০২০

হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

sobdermichil | এপ্রিল ১৪, ২০২০ |
মাটির থালায় ধান / হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

মাটির থালায় ধান

মাটির থালায় যারা ধান এঁকেছিল
আনন্দে মাটি মেখেছিল সারা গায়ে
ধানের বুকে দুধ আসার আনন্দে
তারাই উঠোন গোবরে নিকিয়েছিল
যতদূর গোল হয়েছিল হাতে হাতে
পুরোটাই একটা ভালোবাসার পৃথিবী
ধানের আনন্দে উঠোনে এসে বসেছিল
একটা দুটো তিনটে চারটে চড়ুই
চড়ুইয়ের ঠোঁটে ঠোঁটে যে ধান গল্প লিখেছিল
তার মালিক ছিল বেশ কয়েকটি গাছ
পুবের সূর্যঘর থেকে আলো এসে
খুব একচোট নেচেছিল ধানের উঠোনে
ভাতের গন্ধে বর্ণপরিচয়ের সামনে
কত কত মাথা দুলেছিল একদিন
সাদা ভাতের থালার সামনে
নদীর মতো এসেছিল অবাধ সকাল

তারপর দুপুরেই নেমে এলো এক করাল ছায়া
উঠে এলো এমন কিছু হাত
যাদের বাপ ঠাকুরদাকে পৃথিবীতে
কেউ কোনোদিন কোথাও হাঁটতে দেখে নি
রাতারাতি জমির ক্যানভাসে জমা হলো
                                        অসংখ্য কালো রেখা
আর রক্তের গভীর আঁচড় মাটির গায়ে গায়ে
হাতে হাতে সব ভাত চুরি হয়ে গেল
ভাঙা ফুটো তোবড়ানো থালাগুলো
এমনভাবে ছড়িয়ে ছিল সারা মাঠ জুড়ে
মনে হবে ভারতের ম্যাপটা দিন দুপুরে
সকলের চোখের সামনে কে যেন ছিঁড়ে দিয়েছে।

(C) হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়
Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.