নাসির ওয়াদেন

নাসির ওয়াদেন
আর্তনাদের দরজার 
সামনে দাঁড়িয়ে 

কিছুতেই পেরোতে পারছি না, দরজাটা
চোখের পরদা ঘুমায় পথে, হাতের নাগালে
শুয়ে শুয়ে শিশির ঘাসগুলো
আলটপকা বাউল গান গায়

আলকাপের দোহার রাত ভেঙে ভোর
জেগে আছে চোখ, নিখুঁত ইশারা ,,,,,
মুখে মুখে বাতাস তক্কি করে হাসে পাখি
আকাশের চাঁদ নেমে নদী ভাসাতে চায়

কিছুতেই পেরোতেই পারছি না ক্ষুধার
তেপান্তর মাঠ, মাটির ক্ষত, ধুলোমাখা রাত

আমাকে যতই গঞ্জনা দাও না কেন, তুমি
তোমার অ-ছোঁয়া টিপ আমার স্পর্ধা ভাসায়

যখন নিশুতি জোৎস্নার মায়াচর পেরিয়ে
উঠোনের দরজা পেরোয়, তখন আমি
পথ হারিয়ে ফেলেছি
এতদিন যে দরজা দিয়ে প্রতিদিন হাঁটি
মুখের উপর সেই পথ বিভ্রান্ত, ফুল ফোটে

আজকে কিছুতেই দরজা ভেঙে দাঁড়াতে
পারছি না, ভরসার চাঁদ স্বপ্ন দেখে

কুয়াশাচাদর গায়ে শীত হাসছে বারান্দায়
ভাবছি, কীভাবে দরজাটা পেরোতে হবে
   


শব্দ সরল, 
বাস্তব কঠিন 

কী জানি, মন হেঁকেছিল ক্রোধে, ঘৃণায়
অন্ধকার বলিপথে  পথে ধুলো উড়ে
আকাশ চিৎকার করে ডাকে,  কান্নায়
বাস্তব কঠিন চোখে জল, ধূসর প্রান্তরে

যাকে ভালবাসা বলো, তার ভেতর শোক
সরল শব্দের বর্ণময় ব্যাকরণ পথ,  হাঁটে
জন্মের আগে-পরে যাদের ভূমিষ্ঠ জন্মরোগ
ফোটে ভোরের তারা পড়েছে সে বিভ্রাটে

যে রায়ই হোক না মানুষ বাঁচে ভাবাবেগে
একথা মানুষের, এ শতকের মানুষফণায়
চোখ দিয়ে খেতে ভাল সরল সুদে, আবেগে

সমৃদ্ধি আর কোলাহল মিলে আঁধার ঘণায়



Previous Post Next Post