x

প্রকাশিত | ৯২ তম মিছিল

মূল্যায়ন অর্থাৎ ইংরেজিতে গালভরে আমরা যাকে বলি ইভ্যালুয়েশন।

মানব জীবনের প্রতিটি স্তরেই এই শব্দটি অবিচ্ছেদ্য এবং তার চলমান প্রক্রিয়া। আমরা জানি পাঠক্রম বা সমাজ প্রবাহিত শিক্ষা দীক্ষার মধ্য দিয়েই প্রতিটি মানুষের মধ্যেই গঠিত হতে থাকে বহুবিদ গুন, মেধা, বোধ বুদ্ধি, ব্যবহার, কর্মদক্ষতা ইত্যাদি। এর সামগ্রিক বিশ্লেষণ বা পর্যালোচনা থেকেই এক মানুষ অপর মানুষের প্রতি যে সিদ্ধান্তে বা বিশ্বাসে উপনীত হয়, তাই মূল্যায়ন।

স্বাভাবিক ভাবে, মানব জীবনে মূল্যায়নের এর প্রভাব অনস্বীকার্য। একে উপহাস, অবহেলা, বিদ্রুপ করা অর্থই - বিপরীত মানুষের ন্যায় নীতি কর্তব্য - কর্ম কে উপেক্ষা করা বা অবমূল্যায়ন করা। যা ভয়ঙ্কর। এবং এটাই ঘটেই চলেছে -

চলুন মিছিলে 🔴

শনিবার, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৯

শাশ্বতী গোস্বামী

sobdermichil | ডিসেম্বর ০৭, ২০১৯ | | মিছিলে স্বাগত
বিষয় ....হায়দ্রাবাদের পুলিশি এনকাউন্টার সংক্রান্ত আমাদের বুদ্ধিজীবীদের প্রতিক্রিয়া !
বিষয় ....হায়দ্রাবাদের পুলিশি এনকাউন্টার সংক্রান্ত আমাদের বুদ্ধিজীবীদের প্রতিক্রিয়া !

মাই ডিয়ার বুদ্ধিজীবী ,

কাল ভোরে উন্নাও এর লড়াকু মেয়েটার লড়াই শেষ হলো ! চিরদিনের মতো শেষ হয়ে গেলো একটা নিষ্পাপ, সম্ভবনাময় জীবন। সেই সঙ্গে চিরতরে বোধহয় শেষ হয়ে গেলো ন্যায় বিচারের আশা ।

এবার আপনারা কি বলবেন ডিয়ার বুদ্ধিজীবী ? ন্যায় বিচার , আর আসল দোষী নিয়ে তো খুব চিৎকার করছেন ! এবার উন্নাও আর ঘরের মেয়ে মালদার কেস নিয়ে একটু চেঁচান দেখি । তবেই হাততালি দিই আপনাদের জন্য ! মালদার মেয়েটার পুড়ে যাওয়া ছবি টা তো সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ?

আপনারা চর্মচক্ষুতে সেই ছবি চাক্ষুস করেছেন কি ? 
সে বিষয়ে বাক্যব্যয়ে এতো কৃপণতা কেন আপনাদের ?
নাকি প্রশাসনিক কিছু বিধিনিষেধ আছে ?
সেসবের ও আপনারা তোয়াক্কা করেন নাকি ? ?

সত্যি , বলছি , বুদ্ধিজীবীর সংজ্ঞা টা কেমন পাল্টে গেছে আপনাদের দেখে দেখে । এবার অন্তত একটু সচেতন হোন ? উঠুন , জাগুন !

সাধারণ মানুষের কাছে আজ আপনারা বুদ্ধিজীবী , দয়া করে এই বুদ্ধিজীবী তকমাটার অবমাননা করে নিজেদের সাধারণ মানুষের কাছে ছোটো করবেন না । এবার একটু গলা খুলে বলুন ধর্ষিতা মেয়েদের জন্য , যাঁরা বেঁচে আছেন তাদের বাঁচাটাকে স্বস্তিদায়ক করতে আর যাঁরা মারা গেলেন তাঁদের আত্মার চিরশান্তি কামনার্থে । বুদ্ধিজীবী হয়েও আপনারা যদি সাধারণ মানুষের কাছে ভুল বার্তা দেন তাঁরা কাঁহাতক আর আপনাদের মাথায় তুলে রাখবেন বলতে পারেন ? ?

সবাই সব বোঝে । কাউকে কিছু বোঝাতে হয় না । আর কেউ চোখে ঠুলি আর কানে তুলো দিয়ে নেই !

অযথা ভুলভাল কথা বলে নিজেরা নিজেদের অসম্মান করবেন না ? এখন তো আপনারা শুধু এনকাউন্টার করা দোষের , পুলিশ অপরাধী এইসব বলে গলা ফাটাচ্ছেন ! মানুষকে উত্যক্ত করছেন ! কই একবারও তো বলছেন না , এই সংক্রান্ত Constitutional amendment (সাংবিধানিক পরিবর্তন ) দরকার । আর সেটা ইমিডিয়েটলি হোক । নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দিয়ে স্পেশাল কেস গুলোর বিচার হোক স্পেশাল কোর্টে ? সে ব্যাপারে তৎপর হন ! তবেই তো ওই তকমার সার্থকতা ?

তা না করে এনকাউন্টারের বিপক্ষে মুখ খুলতে এতটুকুও বাঁধলো না আপনাদের ? একবারও কি প্রিয়াঙ্কা রেড্ডির পুড়িয়ে ফেলা মুখটার ছবি ভেসে উঠলো না ? মানবিকতা শেখাচ্ছেন আপনারা ? মানবিকতা ? সত্যি বলছি , আপনাদের দেখলে না আমার করুণা হয় , করুণা ।

কেন বলুন তো ?

মনে হয় আপনারা নিজেদের ওই তকমাটা ধরে রাখতে কতো ভেবেচিন্তে , কখনো বা ওপর মহলের তোয়াজ করে করে কথাবার্তা বলেন ! এভাবে কথা বলে ক্লান্ত হয়ে পড়েন না আপনারা ? নিজেদের ভয়েসের সুরটা মনে আছে তো আপনাদের ?

এবার খোলস ত্যাগ করে বেরিয়ে আসুন ? অসহায়ভাবে মরে যাওয়া অথবা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়া মেয়েদের পাশে এসে দাঁড়ান না একটু ? আপনাদের পাশে পেয়ে ওরাও একটু শান্তি পাক , স্বস্তি পাক । মনে করুক কেউ কিছু বলেছে তাদের জন্য । এভাবেই তো সমাজ পাল্টালে ও পাল্টাতে পারে ! তাতে আপনাদের একটু অবদান রাখুন এবার ! নাহলে সবই তো .....টাকা মাটি আর মাটি টাকা !

Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

�� পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ শব্দের মিছিলের সর্বশেষ আপডেট পেতে, ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.