x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

সোমবার, এপ্রিল ১৫, ২০১৯

সিলভিয়া ঘোষ

sobdermichil | এপ্রিল ১৫, ২০১৯ | | মাত্র সময় লাগবে লেখাটি পড়তে।
সিলভিয়া ঘোষ
কৃষ্ণ গহ্বর

সীমার মাঝে অসীমের হাতছানি
নিত্য অনিত্যের দ্বন্দ্ব সেখানেই জানি
তবুও সকল আমিত্বের মোহ কাটিয়ে
ওজঃ খণ্ডের মায়া থেকে মুক্ত হতেই হবে
একদিন সকলেরে

*
মরণ তুই যে আমার মাধব তোর  কাছেই
যাব  একলা আমি  অভিসারিকা রাধিকার বেশে
সেদিন  আমায় আলিঙ্গন  করিস
পরম ভালোবেসে

*
'মৃত্যুই সত্য'  এই চির জাগরূক
বাণীকে স্বাগত জানিয়েছি
পঞ্চভূতে  বিলীন নিঃস্পন্দিত
দেহে অগুরু চন্দন শোভে  গমন  করি  চল  আজ কৃষ্ণ গহ্বর পরলোকে

*
আদি থেকে অন্তে
মহাকালের ডঙ্কা বাজে  অনন্তকাল
যেখানে, তিমিরঘন উৎস স্থল
সেখান  থেকে বিচ্ছুরিত অরুণিমের সন্ধানে
অবিনশ্বর আত্মার পরিভ্রমণ ঘটে

*
হিংসা, দ্বেষ, ক্লেদ, স্বার্থপরতার চিহ্ন যেখানে
পায় না ঠাঁই সেই নন্দনকানে
সুখ বিলাসে গা ভাসিয়ে থাকা অমরাবতীর তীরে
শুনেছি সর্বদা না কি সদানন্দের মেলা বসে

*
গভীর চুম্বনে  আপন করে নে এবারে
আমি নিঃস্ব আজ, রিক্ত বাহু বাড়িয়ে
রয়েছি তোর দিকে ,সকল তাপ ঘুচিয়ে
নিশ্চল শান্ত করে দে, মরণ রে

Comments
0 Comments
 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.