x

আসন্ন সঙ্কলন

গোটাকতক দলছুট মানুষ হাঁটতে হাঁটতে এসে পড়েছে একে অপরের সামনে। কেউ পূব কেউ পশ্চিম কেউ উত্তর কেউ দক্ষিণ... মাঝবরাবর চাঁদ বিস্কুট, বিস্কুটের চারপাশে লাল পিঁপড়ের পরিখা। এখন দলছুট এক একটা মানুষ এক হয়ে হাঁটছে চাঁদ বিস্কুটের দিকে। আলাদা আলাদা মানুষ এক হয়ে হাঁটছে সারিবদ্ধ পিঁপড়েদের বিরুদ্ধে। পথচলতি যে ক'জনেরই নজর কাড়ছে মিছিল তারাই মিছিল কে দেবে জ্বলজ্বলে দৃষ্টি। আগুন নেভার আগেই ঝিকিয়ে দেবে আঁচ... হাত পোহানোর দিন তো সেই কবেই গেল ঘুচে, যেটুকু যা আলো বাকী সবটুকু চোখে মেখে চাঁদ বিস্কুট চেখে চেখে খাক এই মিছিলের লোক। মানুষ বারুদ কিনতে পারে, কার্তুজ ফাটাতে পারে, বুলেট ছুঁড়তে পারে খালি আলো টুকু বেচতে পারেনা... এইসমস্ত না - বেচতে পারা সাধারণদের জন্যই মিছিলের সেপ্টেম্বর সংখ্যা... www.sobdermichil.com submit@sobdermichil.com

অতিথি সম্পাদনায়

মৌমিতা ঘোষ

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

মৌমিতা ঘোষ

শনিবার, জানুয়ারী ২৬, ২০১৯

কোয়েলী ঘোষ

sobdermichil | জানুয়ারী ২৬, ২০১৯ |
কোয়েলী ঘোষ
কাশ্মীর
ষোলই জানুয়ারি ,২০১৯

প্রিয় সুচরিতা , 

এখন অনেক রাত ।সারা কাশ্মীর জুড়ে তুষারঝড় চলছে। তুলোর মত বরফের আস্তরণে চারিদিক ঢাকা । আমি যেখানে থাকি ছোট্ট একটা ঘর ,মাথায় ছাউনি ।তার ওপর পুরু করে বরফ পড়েছে । সামনে খোলা জানলা।সেখানে বন্দুক ভরা আছে। ওপারে কাঁটাতার ,তার ওপারে পাকিস্তান। সবসময় আমাদের সজাগ থাকতে হয় কখন শত্রু আক্রমণ করে। এখানে দশ দিন সূর্য ওঠেনি। চারিদিক কুয়াশার চাদরে মোড়া । যেদিন সূর্য ওঠে বরফের ফাঁক গলে কি অপরুপ সেই দৃশ্য! আমি ছবি তুলে রাখি । দূরে একটা মন্দির আছে ।সেখানে গিয়ে মাঝে মাঝে প্রণাম করে আসি । 

খুব বাড়ির কথা মনে পড়ে । সেই আমার ছোট্ট গ্রাম ।এতদিনে মাঠের ফসল কাটা হয়েছে ।তার ওপর সর্ষে ছড়িয়ে দিলেই চারিদিক কেমন হলুদ বরণ । মাকে বল , আমাদের মাটির বাড়িটা এবার পাকা করব সেইজন্য তিল তিল করে টাকা জমিয়ে রাখছি । 

আমার পাশেই যে ছেলেটা ছিল , নাম রাকেশ ।কাল জঙ্গির গুলিতে তার প্রাণ গেল । এরোপ্লেনে তার মরদেহ যাবে পাঞ্জাবের এক গ্রামের বাড়িতে । সারা গ্রাম ভেঙ্গে পড়বে , শেষবার বিদায় জানাবে । বীর সেনার জন্য কুর্নিশ আর স্যালুট ।

একটা কান্না দলা পাকিয়ে উঠছে গলার কাছে । গ্রামে ওর নতুন বিবাহিত স্ত্রী আর ছেলে মেয়ে । বৃদ্ধা মা ও আছেন । মৃত্যু আমাদের পায়ে পায়ে ঘোরে তবু আমাদের শোক করতে নেই জানো সুচরিতা । কঠিন ওই বরফের মত করেছি শক্ত কঠিন হৃদয় ।নির্ভীক সেনার মত বলে উঠবো -জয় হিন্দ ! ভারত মাতা কি জয় ! 

এই শীতের রাতে তোমায় মনে পড়ছে । তোমার নরম মুখ ,আদর ,ভালবাসা ,শেষবারে আসার সময় গাল বেয়ে নেমে আসা জল --সব অনুভবে ধরে রেখেছি মনের গভীরে । 

জানি না কবে ছুটি পাব । কবে তোমায় দেখতে পাব , তবে একটা করে চিঠি লিখব তোমার জন্য । সে চিঠি কোনদিন তোমার কাছে পৌছবে না । অপেক্ষায় থেকো ।আমার দেওয়া লাল শাড়িটি পরে হলুদ সর্ষে খেতে তুমি দাঁড়িয়ে , এই ছবিটা আমি রোজ দেখতে পাই , স্পষ্ট দেখতে পাই ।

তোমার জন্য ভালবাসা অনিঃশেষ আর মাকে প্রণাম জানালাম । 

ইতি ---
সুপ্রতিম 


Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.