x

প্রকাশিত

গোটাকতক দলছুট মানুষ হাঁটতে হাঁটতে এসে পড়েছে একে অপরের সামনে। কেউ পূব কেউ পশ্চিম কেউ উত্তর কেউ দক্ষিণ... মাঝবরাবর চাঁদ বিস্কুট, বিস্কুটের চারপাশে লাল পিঁপড়ের পরিখা। এখন দলছুট এক একটা মানুষ এক হয়ে হাঁটছে চাঁদ বিস্কুটের দিকে। আলাদা আলাদা মানুষ এক হয়ে হাঁটছে সারিবদ্ধ পিঁপড়েদের বিরুদ্ধে। পথচলতি যে ক'জনেরই নজর কাড়ছে মিছিল তারাই মিছিল কে দেবে জ্বলজ্বলে দৃষ্টি। আগুন নেভার আগেই ঝিকিয়ে দেবে আঁচ... হাত পোহানোর দিন তো সেই কবেই গেল ঘুচে, যেটুকু যা আলো বাকী সবটুকু চোখে মেখে চাঁদ বিস্কুট চেখে চেখে খাক এই মিছিলের লোক। মানুষ বারুদ কিনতে পারে, কার্তুজ ফাটাতে পারে, বুলেট ছুঁড়তে পারে খালি আলো টুকু বেচতে পারেনা... এইসমস্ত না - বেচতে পারা সাধারণদের জন্যই মিছিলের সেপ্টেম্বর সংখ্যা... www.sobdermichil.com submit@sobdermichil.com

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

মৌমিতা ঘোষ

শুক্রবার, নভেম্বর ৩০, ২০১৮

এ কে এম আব্দুল্লাহ

sobdermichil | নভেম্বর ৩০, ২০১৮ |
এ কে এম আব্দুল্লাহ
একটি আনকাট 
নিজস্ব কম্বিনেশন

মাঝে মাঝে আঙুলের ফাঁক দিয়ে নেমে আসে টেবিলের ওপর নাইফ এন্ড ফর্ক। তাদের চোখের ডগায় ঝুলে থাকে স্বপ্ন। ভেতরে — আমার  ফুটপাথে নেমে আসে ‘বুফে’ রেস্টুরেন্ট। ক্যান্ডল ডিনার নাইটে— আমি জীবনকে চেয়ার বানাই। আর সেই চেয়ারে বসে একাত্তর আইটেমের স্বাদ নিই। 

নাইটব্রীজের হ্যারডস থেকে শপিং শেষে— জার্মানি কুকুর বুকে জড়িয়ে শুয়ে পড়ি মিন্টো রোডের নিজস্ব ড্রিমরোজ ভিলায়। লাঞ্চ শেষে তৃপ্তির বিলাসি ঢেঁকুরে নেমে আসে পিউর বাসমতি চালের গন্ধ ...  আর ছেয়ে যায় টঙ্গির আকাশ। যেখানে পড়ে থাকে আমার আধমরা সহোদরেরা।

এইদৃশ্যে— কারও নাকডাকার ফাঁকে ঘুম ভেঙে যায়। আর আমি খোলা আকাশ এবং ফোসকা পড়া ফুটপাথের মধ্যে কম্বিনেশন খুঁজতে থাকি। যেন স্বপ্ন আর অনুভুতির মিশেল নিয়ে আমি প্রতিদিন জবাই হই। 

আমার দেহ থেকে নেমে যায় ফুটপাথ। আমার পেট থেকে নেমে যায় ভাতের দোকান। তবুও আমি স্বপ্ন দেখি। নিজস্ব স্বপ্ন। আমার ভেতর জেগে উঠছে ফাইভস্টার হোটেল। আমার সম্মুখে দুলছে বাসমতি ক্ষেত। 



Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.