x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮

শ্রেয়া পাহাড়ী

sobdermichil | সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮ | | মিছিলে স্বাগত
শ্রেয়া পাহাড়ী
বঙ্গ সন্তান 

আজকে তোদের এক বীরপুরুষের গল্প বলি শোন ,
যার বুকে প্রতিবাদের আগুন জ্বলতো সারাক্ষণ।

বয়স কম, সাহসী খুব, স্বাধীন তাঁর চিত্ত
উচ্চ বংশের প্রদীপ নয়
তিনি ছিলেন মধ্যবিত্ত।

ইংরেজদের অত্যাচারে যখন
কম্পিত সমাজ ,
তাঁর মতো দেশপ্রেমিকেরাই তুলেছিল প্রতিবাদের আওয়াজ।

ইংরেজ দের বিশ্বাস ছিল,
করবে ভারত জয়
পাশ্চাত্যের কাছে প্রাচ্য নাকি মানবে পরাজয় !

কিন্তু যা হওয়ার নয় তা কি কভু হয় ?
বিপ্লবীদের কাছে
তাদের হার মানতেই হয় ।

এই বাংলায় জন্মেছিলেন
এমনি অনেক গুনী ,
যাহাদের বলিদানে আজি
পুন্য ভারতভূমি ।

সবাই গুনী, সবাই বীর
সন্তান বঙ্গ মাতার ,
যাহাদের বীরত্বের কাছে
অন্যায় সর্বদা মেনে এসেছে হার।

ইতিহাসের প্রতি পাতায় গ্রথিত
তাদের নাম ,
যাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন
বীর ক্ষুদিরাম।

অল্প আয়ু অসীম তেজ
ছিল তার দেহে ,
আপন প্রানকে তিনি গুরুত্ব দেননি ভারত মাতার চেয়ে।

ওনাদের বলিদানের কথা ভেবে আজি সজল হয় নেত্র,
কিন্তু ওনার স্মৃতিই আজি
হৃদয়ে মম হচ্ছে জাগরিত।


অর্থের সামর্থ্য 

শত শত ভুল লোকে করে যায় পাপ
কিন্তু দেখ, অর্থ জোরে
তারা পেয়ে যায় মাফ ।

কিন্তু যারা ভালোমানুষ
সকল স্বার্থ হীন
দিনে দিনে সমাজেতে
তাদের বাড়তে থাকে ঋণ।

কারন তাদের অর্থ নেই নেই সামর্থ্য
যার দ্বারা ব্যক্ত হবে কঠিন সত্য।

কখনো কি হবে এমন
নিস্বার্থ সমাজ ?
দারিদ্রতা কি পাবে শান্তি?
ঘুচবে কি এই স্বার্থপরতার রাজ?




Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.