x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

শনিবার, এপ্রিল ১৪, ২০১৮

সায়ন্ন্যা দাশদত্ত

sobdermichil | এপ্রিল ১৪, ২০১৮ | | মিছিলে স্বাগত
সায়ন্ন্যা দাশদত্ত
ফেসবুকে স্ক্রল করতে গিয়ে কয়েকশো পোস্টার চোখে পড়ল যেখানে লেখা আছে #we_want_justice ....চোখে পড়ল সব্বাই জমায়েত হচ্ছেন বিভিন্ন জায়গায় । উদ্দ্যেশ্য একটাই 'প্রতিবাদ '। রাজনৈতিক রঙ নেই স্পষ্ট করে লেখা ।

এব্যপারে কিছু বলব ....

1) ফেসবুক_বিপ্লব বলে যতই মজা করুন ,আমার ভালোলাগছে সবাই justice শব্দটা লিখেছেন নিজেদের ভারচুয়াল দেয়ালে ।একদিন মনেও লিখবেন সততার সাথে ।নিশ্চই লিখবেন ।

2) পিশাচগুলি বায়োলজিক্যালি মানুষগোত্রের হলেও লড়াইটা মানুষকে সাথে নিয়েই করতে হবে । বিপরীতে মানুষ তবুও সুবিচারের আশা মানুষেরই কাছে ।পালানোর জায়গা নেই ।হয় সংস্কার নয় গণহত্যা ।মেরে ফেলুন বয়স নির্বিশেষে সব সব মেয়েদের ।

3) রাষ্ট্র বেসিক্যালি কি ?ভোট পেয়ে ক্ষমতায় থাকা মুষ্ঠিমেয় লোক এবং তাদের গুন্ডা ।আমরা কে ? ভোট দেওয়া হাত ।ক্ষমতা দেওয়া মানুষ ।আর অর্থ দেওয়া আঙ্গুল । আমরা হাত সরালে রাষ্ট্র টিকবে ? ভয় কাকে ?আমরা সংখ্যায় বেশি ।আগেও ছিলাম আর আজো ।শুধু ক্ষমতায়নের চশমাটা খুলে নিজের মেয়ের মুখটা আর আসিফাকে দেখতে হবে ।

4) আজ আসিফাকে ভাবছি আর আগামীকাল আমার বেড়ানোর ছবি আপলোড করলাম ....মানেই কি ভয়ংকর দ্বিচারিতা ? পরিবারে মৃত্যু হলে ,সময় কি থেমে যায় ? আসলে আসিফার মৃত্যু হয়েছে ।ভয়ংকর একটা মৃত্যু যা আটদিন ধরে কিছু পিশাচ তাকে উপহার দিয়ে গেছে । আসিফা ফিরবেনা ।মৃত্যুর পরে কোন অস্তিত্বে বিশ্বাস করিনা আমি । এ লড়াইতে আসিফার যায় আসেনা কিছু ।কারণ she is no where at all ! আমরা লড়ব নিজেদের জন্যে ।আগামীর জন্যে ।আরেকটি মেয়ের যেন এমন পরিণতি না হয় তার জন্যে ।এটা কোন হুজুগ না হলেই ভালো । এটা প্রতিদিন ,প্রতি পল সবার ভেতর চলতে থাকলেই ভালো ।খাব ,পরব ,অফিস দোকান সব করব but still লড়াইটা চলবে যতদিন না অবস্থাটা পাল্টাচ্ছে ।

5)আমরা সবাই ভিকটিম ।আমাদের যাদের যোনি আছে ।স্তন এবং মা ,বোন অথবা কন্যা আছে আমরা সবাই ভিকটিম । বংশ তুলে গালাগালিতে আমাদের যতখানি রাগ হয় .....এই ঘটনায় তার থেকেও গভীর আহত আমরা । বাঁচতে হলে সম্মান চাই ,জায়গাও । আর নইলে পৃথিবী নারীবর্জিত হয়ে থেকো ....

6) রাজনীতিকে আর কোন কোন খাঁজে গুঁজবেন আপনারা ? বাবা ছেলের রাজনীতি !স্বামী স্ত্রীর রাজনীতি !শিক্ষায় ,স্বাস্থ্যে,চাকরিতে ,পাড়ায় .....এমনকি ধর্মেও ? রাম রহিম উত্সব আয়োজন সবই ঐকান্তিক ব্যক্তিমানস ও আধ্যাত্মিক প্রশান্তি ডিঙ্গিয়ে অদ্ভুত এক ভাগাড়ে পর্যবসিত হচ্ছে আজকাল ,কারণ সেই ক্ষমতায়ন !সেই রাজনীতি !!! আমরা কি এমনই বোকা ,অন্ধ হয়ে থাকবো চিরকাল ?






Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.