x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

বুধবার, জানুয়ারী ৩১, ২০১৮

শর্মিষ্ঠা ঘোষ

sobdermichil | জানুয়ারী ৩১, ২০১৮ | | মিছিলে স্বাগত
শর্মিষ্ঠা ঘোষ
 বাঁশি নয় বংশ 

আমি বাঁশের কারবারি বাঁশির সৌখিনতা আসে না। অনেক না পারার দীর্ঘ ছায়ায় বেশিটাই রাহুগ্রস্ত থাকি। আবার পারার মধ্যে সবাই যা যা পারে , হদ্দমুদ্দ মুনিষ খাটা থেকে শুরু করে কুডুনির মত খুঁটে খুঁটে দিন রাত্রির আনা এক পায়ে চালিয়ে নিতে পারি। কখনো সখনো রেগে উঠতে পারি তার চেয়ে দ্রুত নিভে যেতে পারি , হ্যা হ্যা জিভ ঘুরে মরতে পারি জমকালো নাটকের ব্যাকড্রপে । যা যা ঘটেছে ক্ষয় ক্ষতি বেমালুম ভুলে একই গড্ডলিকায় ডুবে মরতে পারি হাস্যকর পটুতায়। চিহ্নিত অসুখে ঔষধের নিদানপত্র রচনার জন্য একটি জবর প্রস্তাবনা দরকার। তার প্রতিটি ধারা উপধারায় একটি সংশোধনাত্মক লাইন থাক আত্মসমালোচনা মূলক। বারংবার বলা অভ্যাস করি, যা পারি তা পারি, যা নেই তা নেই । নিলে কেউ এমনিভাবেই নিও , এলে কেউ তেমন বুঝেই থেকো । সে আমার শান্তি স্বস্তি ঘুম, মাথা উঁচু রক্তঘামের পাওয়া, দীন পাতে পরম লবনভাত । 




Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.