x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭

বৈশাখী দাস

sobdermichil | ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭ | | মিছিলে স্বাগত
বৈশাখী দাস
 ব্রেকিং নিউজ  

খবরকাগজ, প্রথম পাতায় 'ধর্ষণ'
পাঠক সমাজ? অঝোরে করুণা বর্ষণ!
বর্ণনা প'ড়ে, কল্পনা ক'রে দৃশ্য...
উত্তেজক এক সুড়সুড়ি পায় বিশ্ব!
নীল ছবি দেখা,নিষিদ্ধ সেটা বরাবর।
নীল দৃশ্যতে চালাচ্ছে কাঁচি সেন্সর।
পরোয়া করিনা, আছে সংবাদ মাধ্যম,
টাটকা ও তাজা খবর,খাস্তা মোক্ষম।
দর্শাতে গিয়ে পাপীর পাপের মাত্রা,
গোপন অঙ্গের বিশ্লেষণেও ছাড়াচ্ছে ওরা মাত্রা।
কোনো জমায়েত, যে কোনো প্রকার জটলা
'ধর্ষিতা' নারী, আবারো সেখানে একলা।
নানা আলোচনা, এবং নানান বাক্যবাণ,
ক্ষত কুরে তার আবারো আবারো রক্ত স্নান।
পশু প্রবৃত্তি পূর্ণ করছে এক সমাজ
বাকীরা ব্যর্থ বন্ধ করতে গুণ্ডারাজ।
ছোট পর্দায় ব্রেকিং নিউজ 'ধর্ষণ '
চড়া টি আর পি,খবরে মূল আকর্ষণ! 
"কবে ধর্ষণ? কোথায়? কখন?
কতটা হিংস্র? কি তার ধরণ?
ফলাফলটি কি? কিই বা কারণ?
আইনের ফাঁক, বোবা প্রশাসন! "....
প্রভৃতির দিয়ে রসালো রসালো ব্যাখ্যা,  
নবাগতদের উৎসাহ দিতে,দিচ্ছে মিডিয়া শিক্ষা।
বাড়বে চেতনা,জাগ্রত হবে জনগণ?
প্রতিবাদ হেনে, বন্ধ করবে এ পীড়ন? 
হবে সতর্ক, চিনতে শিখবে ছলনা?
অগ্নিগর্ভা জ্বালামুখী হবে, প্রতিটি ভারতললনা?
কিছু সাদামাটা রসিক মানুষ নারীবেশ দেখে ফুঁসছে
কাঁচা খিস্তির উড়িয়ে তুফান, প্রশাসনকেও দুষছে। 
মধ্যবিত্ত ষাট শতাংশ ভারতীয় নাগরিক.... 
ভাবনা এদের বড়ই সীমিত, সংসার কেন্দ্রিক।
কোনো বিপ্লব আনে না কখোনো এদের পদক্ষেপ।
রসাতলে যাক বহির্বিশ্ব, নেই কোনো ভ্রূক্ষেপ!
সাময়িক কিছু ভাবনা, মনের সাময়িক পরিবর্তন।
অবশেষে সেই গতানুগতিক জীবন-জীবনদর্শন!
বরঞ্চ কিছু ইভটিজারের খুশির যে নেই অন্ত
ইভটিজিংয়ের জগতে খুলে যে যাচ্ছে নব দিগন্ত। 
বিশেষত কিছু বিকৃত রুচি ও বিকৃতকামীর দল
চক্ষু কর্ণে পাচ্ছে তৃপ্তি,বাড়াচ্ছে মনোবল।
খবরে,জাবরে,মিডিয়া শুধুই বাড়াচ্ছে অস্বস্তি
মার প্যাঁচ নয়,সরাসরি হোক দোষীর চরম শাস্তি।


Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.