Header Ads

Breaking News
recent

সায়ন্তন গোস্বামী

সায়ন্তন গোস্বামী
 বন্ধু নিলোফার 


 বন্ধু নিলোফার, আমরা কি সেই চিলডানার পল্লীগাথায় আবার ঢুকে যেতে পারি, পুজোর আগ দিয়ে, দুলে উঠবে সমবায় গোষ্ঠীর পুল, নীচে সবুজ টলটলে পানি, বাসায় সবাইরে কইব আজকে আমার দাওয়াত আছে উত্তরদিশায় ? খালা চোখ রাঙায় এখন তো সকাল পৌনে আটটা, দাওয়াত সেই দুপুরে, দুধ মুড়ি আম দিয়ে নাশতাটা কর বেল্লিক, না না আর এখন এসব কিচ্ছু না, রাবির মাদার বখশ হলে, বড় মায়াবী আবাসন গো, তাও বহু বছর হয়ে গেল, আমি প্রথম লিখেছিলাম চলেন মেঘদল হয়ে ঘুরে বেড়াবেন, সে রাজি হয়েছিল, তারপর যে কতবার, কতবার, কখনো পাখি, কখনো প্লেন, ঘুড়ি, এমনকি ইলেক্ট্রিক তারও, নীল আসমানে এসপার-ওসপার সব যাপন, বুঝবেনা তোমরা এসব বুঝবেনা, নিলোফার এখনো কয় আফনার চয়েসের বলিহারি, চিলডানা ! ক্যান, ফিঙে তো ভারি মিষ্টি পাখি, আমার ফেভরেট, নাকি পরে ঘুরিয়ে লাভবার্ড কইবেন তাই ভূমিকা করসেন, অত সহজ কি কিছু আমি একান্তে ভাবি, আবার সহজ না হলেও তো মাথার শিরা টাটায়, কিন্তু আজ তোমারে কই, চারপাশের হিংস্রতার ভেতরে, রুটমার্চের পার্কাশান বাদ্যের ভেতরে, তিন কুড়ি পনেরো বছরের জাতনিমের ধিকিধিকি ছাইয়ের মধ্যে, দোস্ত-বিরাদরের জাহিলিয়তের ভেতরে যদি একটুও বাতাস থাকে, নরম ধুলো থাকে জমিনের, তা তোমার চিনিগুলা হাসির ধারে, তোমার রসিকতায় - নিলোফারের সাথে লোফার, তোমার সাথে সাম্পানের নাওতে বসে কথা বলা, শুধু কথা, আর দূরে বটের ঝুরির সেমুইয়ের দিকে তাকিয়ে থাকা, বন্ধু নিলোফার ।



কোন মন্তব্য নেই:

সুচিন্তিত মতামত দিন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.