x

প্রকাশিত বর্ষপূর্তি সঙ্কলন

দেখতে-দেখতে ১০ বছর! শব্দের মিছিলের বর্ষপূর্তি সংকলন প্রকাশের সময় এ খুব অবিশ্বাস্য মনে হয়। কিন্তু অজস্র লেখক, পাঠক, শুভাকাঙ্ক্ষীদের সমর্থনে আমরা অনায়াসেই পেরিয়ে এসেছি এই দশটি বছর, উপস্থিত হয়েছি এই ৯৫ তম সংকলনে।

শব্দের মিছিল শুরু থেকেই মানুষের কথা তুলে ধরতে চেয়েছে, মানুষের কথা বলতে চেয়েছে। সাহিত্যচর্চার পরিধির দলাদলি ও তেল-মারামারির বাইরে থেকে তুলে আনতে চেয়েছে অক্ষরকর্মীদের নিজস্বতা। তাই মিছিল নিজেও এক নিজস্বতা অর্জন করতে পেরেছে, যা আমাদের সম্পদ।

সমাজ-সচেতন প্রকাশ মাধ্যম হিসেবে শব্দের মিছিল   প্রথম থেকেই নানা অন্যায়, অবিচার, অসঙ্গতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছে। এই বর্ষপূর্তিতে এসেও, সেই প্রয়োজন কমছে না। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরবর্তী বিভিন্ন হিংসাত্মক কাণ্ড আমাদের যথারীতি উদ্বিগ্ন করছে। যেখানে বিরোধী দলের হয়ে কাজ করা বা বিরোধী দলকে সমর্থন করার অধিকার এখনও নিরাপদ নয়, সেখানে যে গণতন্ত্র আসলে একটি শব্দের বেশি কিছু নয়, সেকথা ভাবলে দুঃখিত হতেই হয়। ...

চলুন মিছিলে 🔴

ফেসবুক এর পরামর্শ

sobdermichil | সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৭ | |

 ভুয়ো খবর চেনার পরামর্শগুলি 

আমরা Facebook -এ ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়া বন্ধ করতে চাই। আমরা কি কাজ করছি   সেই বিষয়ে আরো জানুন। আমরা ছড়িয়ে পড়া সীমিত করতে কাজ করি, কোন বিষয়গুলি থেকে সাবধান থাকা দরকার এখানে সেরকম কিছু পরামর্শ দেওয়া হল:

শিরোনামগুলিকে সন্দেহের চোখে খুঁতিয়ে দেখুন। ভুয়ো খবরগুলিতে প্রায়ই আকর্ষক শিরোনাম থাকে যা বিস্ময়বোধক চিহ্ন সহ সব বড় হাতের অক্ষরে লেখা হয়। যদি শিরোনামটিতে থাকা ভয়ঙ্কর দাবিগুলি অবিশ্বাস্য হয়, তবে সেগুলি সম্ভবত ভুল খবর।

URLটি ভালো করে চেক করে নিন। একটি অপ্রকৃত বা সমরূপ URLকে ভুয়ো খবরের একটি সতর্কতা চিহ্ন হিসাবে ধরা যেতে পারে। অনেক ভুয়ো খবরের সাইটগুলি URL -এ কিছু সামান্য পরিবর্তন করে মূল সংবাদের উৎসকে অনুকরণ করে। আপনি সেই সাইটে গিয়ে উৎসগুলি যাচাই করে, URLটির সাথে তুলনা করে দেখতে পারেন।

উৎসটির বিষয়ে তদন্ত করুন। সঠিক খবর লেখার সুনাম রয়েছে, আপনি বিশ্বাস করেন এমন কোন উৎস খবরটি লিখেছে কিনা তা নিশ্চিত করুন। যদি খবরটি কোনো অপরিচিত প্রতিষ্ঠান থেকে আসে, তবে আরো জানতে তাদের "আমাদের সম্পর্কে" বিভাগটি চেক করুন

অস্বাভাবিক ফর্ম্যাটিং রয়েছে কিনা দেখুন। অনেক ভুয়ো খবরের সাইটেই ভুল বানান বা অদ্ভুত লেআউট দেখা যায়। আপনি এই লক্ষণগুলি দেখতে পেলে যত্ন সহকারে পড়ুন।

ফটোগুলি বিবেচনা করুন। ভুয়ো খবরগুলিতে প্রায়ই কারসাজি করা চিত্র বা ভিডিওগুলি থাকে। কখনও কখনও ফটো বিশ্বাসযোগ্য হতে পারে, তবে তা প্রাসঙ্গিকতার বাইরে থাকে। আপনি ফটো বা চিত্র কোথা থেকে নেওয়া হয়েছে তা যাচাই করার জন্য সন্ধান করতে পারেন।

তারিখগুলি খুঁটিয়ে দেখুন। ভুয়ো খবরের স্টোরিগুলি এমন সময়সীমার মধ্যে থাকতে পারে যা অনর্থক বা এতে ইভেন্টের তারিখগুলি পরিবর্তন করা হতে পারে।

প্রমাণ দেখুন। সঠিক কিনা নিশ্চিত করতে লেখকের উৎস দেখুন। প্রমাণের অভাব বা অজ্ঞাত পরিচয়ের বিশেষজ্ঞদের উপর নির্ভরতা একটি ভুয়ো খবরের ইঙ্গিত দিতে পারে।

অন্যান্য রিপোর্ট দেখুন। যদি অন্য কোনও সংবাদ উৎস একই খবর প্রতিবেদন না করে থাকে, তবে তা এটিই প্রমাণ করে যে খবরটি মিথ্যা। যদি খবরটি আপনার বিশ্বস্ত একাধিক উৎস থেকে প্রতিবেদন করা হয়, তবে এটা সত্যি হতে পারে।

খবরটি কি কোনো কৌতুক? কখনও কখনও ভুয়ো খবরের স্টোরিগুলি থেকে হাস্যরস বা কৌতুকের পার্থক্য নিরূপণ করা কঠিন হতে পারে। উৎসটি প্যারডি হিসেবে পরিচিত কিনা এবং খবরের বিশদ বিবরণ ও টোন শুধুমাত্র মজার জন্য হতে পারে তার ইঙ্গিত দিচ্ছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখুন।

কিছু খবর ইচ্ছাকৃতভাবে মিথ্যা হয়। আপনি যে খরবগুলি পড়েছেন তা নিয়ে জটিলভাবে চিন্তা করুন এবং আপনি বিশ্বাসযোগ্য মনে করেন শুধু এমন খবরই শেয়ার করুন।


অনান্য বিষয়গুলি - 









Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন


বিজ্ঞপ্তি
■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.