x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

সোমবার, জুলাই ৩১, ২০১৭

অভিজিৎ পাল

sobdermichil | জুলাই ৩১, ২০১৭ | | মিছিলে স্বাগত
অভিজিৎ পাল
 অবয়ব 

১।

জীবন থেকে শরীর শব্দটা তুলে নিলে যতটুকু ভগ্নাংশ পড়ে থাকে, তা থেকে আমার দীর্ঘ পৃথিবীযাপনের হিসেব মেলাতে চেও না। আমি এখনও জটিল সব বিভাজ্য সংখ্যার সাথে যোগ করি আদিরসগুলোকে। আমার শৃঙ্খলহীন চাওয়া পাওয়ার অনেক হিসেব গতেবাঁধা জীবনের বীজগাণিতিক সূত্রে মিলে যায়। কখনও মিলতে চায়ও না। অযাচিত উপাখ্যান আঁকি। খসখস করে চারকোল চলে। ক্যানভাসের নীচ জমতে শুরু করে নিটোল রঙের আনন্দগান। আমি বুঁদ হয়ে যাই...

২।

সহজ কথায় মিশে থাকে সহজাত পাওয়ার এক-একটি আখ্যান। স্বচ্ছন্দ হতে শিখি। উগ্র নগরবাদ কর্পোরেট জগতের বাচিক শিল্প সাজায়। বহুমাত্রিক ছবি আঁকি। জানি রাজনৈতিক পরিচয় না থাকলে ছবিগুলো কখনই চিত্রশিল্প হতে পারে না। আমি ক্রমশ জটিল থেকে জটিলতর হয়ে উঠি। ভয় জমতে থাকে। জটিলতম খোলসের ভিতর গুটি পাকিয়ে বসে থাকি অসহ সময় মেপে। একদিন গুটি কাটবই। বের হয়ে আসব রঙিন পালকে...


৩।

নান্দনিক গতিচিহ্নের সাথে মিশিয়ে রাখি বিজন ভট্টাচার্যের নাটক। আমার একান্ত পরিচিত আত্মভাবনারা ঘুরে বেড়ায় দৃশ্যগহ্বের। রতিপত্র উত্থাপন করি ডেস্কে। টেবিলের ওপারে আমার পরম শ্রদ্ধেয় আমার ভাবনাগুলো নাকচ করতে করতে এক সময় নিজেই রঙ চড়ান। ছবি আঁকেন চিত্রপটে। হাততালি আর হাততালি। আমার প্রদত্ত হাততালির শব্দ তাঁর কর্ণবিদারক হয়ে ওঠে। আমি এখনও পুরোপুরি অনুগত মার্জার হতে পারিনি। আমার পূর্বপুরুষ আমার পূর্বনারী এখনও অজস্র ক্যালশিয়াম জোগান দিয়ে চলেছেন আরও দৃঢ় করতে চাওয়া মেরুদন্ডে...


Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.