Header Ads

Breaking News
recent

শুক্লা মালাকার

শুক্লা মালাকার
 রঞ্জনের চোখ দুটি 

দুটো চোখ তাড়া করে ফেরে নন্দিনীকে
ভীষণ ব্যাক্তিগত দুটো চোখ, রঞ্জনের
যার প্রতিটি দৃষ্টিতে চাপ-চাপ বুনো আবেগ
আর নির্বাসিতের বেদনা,
বৃষ্টি যখন ভাঙে
অকপটে সেই চোখ ঘেঁটে দিতে চায় নন্দিনীর মন।

দোমড়ানো মোচড়ানো এক রাতে
বিশ্বাসের ফানুস পুড়িয়ে রঞ্জনকে
সঁপে এসেছিল রাজার প্রহরীদের হাতে,
ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বলেছে আত্মহত্যা
নন্দিনী জানে
লতায় পাতায় জড়িয়ে ক্ষমতার কানাকানি
সন্ত্রাস জাগিয়েছে
লোপাট করেছে রঞ্জনের আত্মা, মুর্খ ব্যকুলতা।

রয়ে গেছে দুটি চোখ, ভীষণ ব্যাক্তিগত
রঞ্জনের দুটি চোখ
উথলে পড়া অভিমান আঁক কাটে
গোপন পাথর খাদানে
ক্লান্তিহীন।

এইবার অন্ধ হও, নন্দিনী
রাবণের চিতা জ্বালো
ভোগ আর বিলাসিতার উগ্রগন্ধে
শপথ হারিয়েছিলে, ভেবেছিলে
যে নদী সুখ দেবে না
তার তীরে বাস করা অনর্থক বোকামী।    


 গর্ভবতী ইচ্ছেদের কোলে নিয়ে 

কোপাইয়ের ধার ঘেসে কাঁদামাটি পেরিয়ে
যতদূর যাওয়া যায় হারিয়ে যেতে চাই- কিংবা,
রঙ্গিতের পাড় ভাঙা উদ্দাম স্রোত-সন্ন্যাস হয়ে
আদর ছোঁয়ায় ক্ষয়ে যেতে চাই-
দিকচক্রবাল থেকে ধেয়ে আসা
গর্ভবতী মেঘেদের প্রসব যন্ত্রণা দেখে দেখে সুখচর হতে চাই-
গোয়ার বীচে বিকিনি পরা কামনা হয়ে
ঢেউ হয়ে যেতে চাই-

আরো আরো অনেক চাওয়াদের কথা ভেবে ভেবে
একবার গর্ভবতী হতে চাই-
ইচ্ছেদের কোলে নিয়ে এ জীবনে অন্ত্যত একবার
মা হতে চাই--  


কোন মন্তব্য নেই:

সুচিন্তিত মতামত দিন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.