x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

বৃহস্পতিবার, মে ২৫, ২০১৭

রায়গঞ্জে, দুই বাংলার কবি সাহিত্যিকদের মেলবন্ধন অনুষ্ঠান

sobdermichil | মে ২৫, ২০১৭ | | মিছিলে স্বাগত
রায়গঞ্জে, দুই বাংলার কবি সাহিত্যিকদের মেলবন্ধন অনুষ্ঠান
ত ২৪শে মে বিকেল সাড়ে পাঁচটায় রায়গঞ্জ চেম্বার অব কমার্সে (সুপার মার্কেট) দুই বাংলার কবি সাহিত্যকদের মেলবন্ধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ থেকে আগত ভাস্কর চৌধুরী, বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক, খম্দকার সামশুজ্জোহা, বিশিষ্ট সাহিত্যিক, বাচিক শিল্পী, সংবাদ পাঠক, সাংবাদিক এবং সারওয়াত শামীন তৃষা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর আইন বিভাগের অধ্যাপিকা এবং কলকাতা গোলপার্ক রামকৃষ্ণ মিশনের হিস্পানিক ভাষার অধ্যাপিকা এবং বিশিষ্ট হিস্পানিক সাহিত্যের অনুবাদক জয়া চৌধুরী সহ রায়গঞ্জের বিশিষ্ট কবি সাহিত্যিক শিল্পীমহল । 

বিশিষ্ট কবি শর্মিষ্ঠা ঘোষের সামগ্রিক পরিকল্পনায় অনুষ্ঠানটির আয়োজক নিখিল ভারত বঙ্গ সাহিত্য সম্মেলন এর রায়গঞ্জ শাখা। অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন রায়গঞ্জ এর বিভিন্ন লিটিল্‌ ম্যাগাজিনের সম্পাদক মন্ডলীবৃন্দ। 

কবি, গল্পকার, ঔপন্যাসিক ভাস্কর চৌধুরী বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের একজন গেরিলা যোদ্ধা এবং ভাষা আন্দোলনের সক্রিয় সৈনিক । "ঘোর লাগা ঘোর" , "ধনসামাতি এবং তার জীবনবৃত্তান্ত" তার বিখ্যাত উপন্যাস। চব্বিশটির ও বেশি উপন্যাস এবং পনেরোটির ও বেশি কবিতা গ্রন্থ ইতিমধ্যে প্রকাশিত। অনুষ্ঠানের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি বলেন, "দুই বাংলার মধ্যে একই সত্ত্বা বর্তমান। মেলবন্ধন তো হয়েই আছে।"

যমুনা টিভির সাংবাদিক এবং সংবাদ পাঠক খোন্দকার শামসুজ্জহার গল্প কবিতা প্রবন্ধ মিলিয়ে প্রকাশিত আটটি গ্রন্থের পাশাপাশি প্রকাশ হয়েছে কবিতার নয়টি অ্যালবাম। রবীন্দ্রনাথ, আল মাহমুদ, রণজিৎ দাস, ভাস্কর চৌধুরীর নিরঞ্জন সিরিজ তার মধ্যে অন্যতম। অনুষ্ঠানে তিনি শামসুর রহমান, রবীন্দ্রনাথ, ভাস্কর চৌধুরী এবং স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি করে শ্রোতাদের মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখেন। 

জয়া চৌধুরী পাঠ করলেন মূল স্প্যানিস থেকে অনুদিত মেক্সিকান কবি খাইমে সাবিনেসের কবিতা। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত ভাষণ দেন নিখিল ভারত বঙ্গ সাহিত্য সম্মেলন এর রায়গঞ্জ শাখার সম্পাদক স্বপন মজুমদার এবং বিশিষ্ট কবি ব্রততী ঘোষ রায়। অনুষ্ঠানে একটি কাব্যগ্রন্থ্য এবং অমিত পাল সম্পাদিত পত্রিকা "অমৃতানি" প্রকাশিত হয় আগত অতিথিবর্গের হাত দিয়ে। 

বিশিষ্ট অতিথিদের সম্বর্ধনা জানানোর পাশাপাশি, অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও কবিতা পাঠ। কবিতা পাঠ করেন সৌরেন চৌধুরী, অরুণ চক্রবর্তী, চন্দন চক্রবর্তী, দেবেশকান্তি চক্রবর্তী, তপন রায়, অর্পিতা গোস্বামী চৌধুরী, পুনম চৌধুরী, শুভব্রত লাহিড়ি, স্বপন মজুমদার, অনিল দেব, অপূর্ব দত্ত, দীপা চৌধুরী, শর্মিষ্ঠা ঘোষ, রাণী সেন, আরতি দেবনাথ প্রমুখ।


অনুষ্ঠানের কিছু মুহুর্ত




Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.