x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৩, ২০১৭

পিয়ালী বসু ও জয়ীতা ব্যানার্জী গোস্বামী

sobdermichil | মার্চ ২৩, ২০১৭ | | মাত্র সময় লাগবে লেখাটি পড়তে।
 নামহীনতা কোন অসুখ নয় 

" A poem should be motionless in time
As the moon climbs, " ------- Archibald MacLeish "Ars Poetica

পরিযায়ী পাখির ঠোঁট ছুঁয়ে নেমে আসা আসন্ন সন্ধ্যা
অসনাক্ত' জীবনের গল্প বলতে চেয়ে
উত্তেজনায় আঙুলের ডগা কাঁপিয়ে ...
বাতিল অতীতচারিতাকে সম্পর্কের মান্যতা দিতে চায়

সম্মতিসূচক হ্যাঁ ' বললেই ভাল থাকা যায়না
একথাটা ... নিষেধের অনন্ত স্মৃতিপালক ছুঁয়ে স্পষ্ট হয় প্রতিবার

সময়কালীন বিনোদন শেষে
মননের গভীরে প্রসারিত হয় সান্ধ্য অবসন্নতা
ফেলে আসা সময়ের বাচনিক অনুরণন ভেদ করে শূন্যতা অসুখে অভ্যস্ত হওয়া নাগরিক মন , গরমিলের জীর্ণ গর্ভবাসে ... হারিয়ে যাওয়া মৌলিক কথামালাদের ইলোরার ভাস্কর্য দেয় ।

সময়ের বিরামে গাঢ় অন্ধকার স্পষ্টতর হলেও
অযোনিসম্ভূত আলো আলফাজ ... ব্যক্তিগত ক্ষরণের ছবিগুলি'কে অপসৃয়মান আলো আঁধারে সংরক্ষিত রাখে

গোধূলির কাছে নিজস্ব পরিচিতি রেখে আসে বিগত যৌবনের ঈশ্বরবাদ
শরীর সর্বস্ব প্রত্নতাত্বিক মিথ জড়িয়ে থাকে যেসব ভাস্কর্যের বুকে
চাঁদের ছায়ায় সেসব দিয়েই রচনা করা যায় একটি ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট....চরিত্র'রা যেখানে , আত্মবিস্মৃতির অতল গহ্বর থেকে তুলে আনে নীল বিষপাত্র

ধ্বনির হৃদয় থেকে শুষে আনা নৈঃশব্দ
অ্যালজাইমারে'র মৌন সংলাপ মেপে
প্রবল অন্ধকারেও শব্দের আলো আলফাজ রচনা করে

অশ্রু গলে পড়া বিষণ্ণ বিকেলে
আকাশের ছায়াবদল অধিকারের আলতো কারুকার্য বুনে
অতীতচারিতার সপ্তম ব্যূহ পেরোয়

তারপর অসমাপ্ত যতটুকু.......জটিল মানসিক রোগের তারিফ কুড়িয়ে জমা হয় সংশোধনাগারের গরাদে
অবসাদ-যাপন ঘিরে ত্রিমাত্রিক রঙের খেলায় প্রতিবার প্রকট হয়ে ওঠে যাবতীয় ধূসর ইতিবৃত্ত

বিশ্বস্ত প্রহরী'র রাত্রিকালীন মহড়া'র অন্তিম পর্বে
অ্যালপাজোলাম'র সাথে একান্ত আলাপচারিতায় মনে পড়ে সম্ভোগ আর পরিতৃপ্তির অন্তর্বর্তী নির্লিপ্ততা , নির্দিষ্ট দূরত্ব থেকে দায় সেরে ফিরে যায় তামাম প্রেম জাতীয় চটুল অভিব্যক্তি

আবেগহীনতার অসুখে ভোগে একটি রাত
আলোহীনতার অসুখে ভোগে দিনগুলি....
আত্মপরিচয় হারিয়ে একেকটি লমহা ছুঁয়ে যায় চিরপরিচিত মৃত্যুর কাঠামো...
নামহীনতা কোন অসুখ নয় ....
অসুখের পাশে শায়িত একটি অশ্রুত উপহাস মাত্র




Comments
0 Comments
 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.