x

আসন্ন সঙ্কলন

গোটাকতক দলছুট মানুষ হাঁটতে হাঁটতে এসে পড়েছে একে অপরের সামনে। কেউ পূব কেউ পশ্চিম কেউ উত্তর কেউ দক্ষিণ... মাঝবরাবর চাঁদ বিস্কুট, বিস্কুটের চারপাশে লাল পিঁপড়ের পরিখা। এখন দলছুট এক একটা মানুষ এক হয়ে হাঁটছে চাঁদ বিস্কুটের দিকে। আলাদা আলাদা মানুষ এক হয়ে হাঁটছে সারিবদ্ধ পিঁপড়েদের বিরুদ্ধে। পথচলতি যে ক'জনেরই নজর কাড়ছে মিছিল তারাই মিছিল কে দেবে জ্বলজ্বলে দৃষ্টি। আগুন নেভার আগেই ঝিকিয়ে দেবে আঁচ... হাত পোহানোর দিন তো সেই কবেই গেল ঘুচে, যেটুকু যা আলো বাকী সবটুকু চোখে মেখে চাঁদ বিস্কুট চেখে চেখে খাক এই মিছিলের লোক। মানুষ বারুদ কিনতে পারে, কার্তুজ ফাটাতে পারে, বুলেট ছুঁড়তে পারে খালি আলো টুকু বেচতে পারেনা... এইসমস্ত না - বেচতে পারা সাধারণদের জন্যই মিছিলের সেপ্টেম্বর সংখ্যা... www.sobdermichil.com submit@sobdermichil.com

অতিথি সম্পাদনায়

মৌমিতা ঘোষ

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

মৌমিতা ঘোষ

বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৩, ২০১৭

কোয়েলী ঘোষ

sobdermichil | মার্চ ২৩, ২০১৭ |
ইমন ফাগুন মাসে --
ফাগুন মাস এলি পরে টুসু হলুদ পারা কাপড় পড়ি হুই লদীর ধারে ছমক ছমক করি মল বাঁজায়ে যায়। যখুন ফাগুনের রঙ লাগে পলাশ বুনে। টুসুর খোঁপার চুড়োয় লাল ফুল, কাজলপারা চোখ কারে খুঁজি বিড়ায় । সি বারে ইমনি এক ফাগুন মাসে এক ফটক তোলা বাবু এইছিল । বনের পথ ধরি টুসু তখন ছাগল চড়ায়ে ঘরকে ফিরছিল । 

'আরে দাঁড়াও দাঁড়াও -- হাউ সুইট ! নাইস ! বিউটিফুল ! '

টুসুর হাতে লাঠি , সি দাঁড়াইয়ে গিল । ওমনি আলো ঝলকাই উঠলো ।

বাবু ছেলে হেসে কইল -- 'তোমার দুটো ছবি নিলাম । কি সুন্দর তুমি --এই প্রকৃতির মাঝে তুমি ! আমি ওই বাংলোয় কাল এসেছি । এই জঙ্গল কি একটু ঘুরে দেখাবে ?' 

'পারব লাই বাবু , ঘরে মিলাই কাজ পড়ে । বাপের লেগে ভাত রাঁধব ।'

টুসু পলাইয়া বাঁচল বটে তবু ঘরের কাজ করতি করতি বার বার মন উথাল পাথাল । বিকেল থাকতি আবার মহুল বনে দিখা হল সেই ফটো বাবুর সাথে , একলা উদাসপারা ভেলেছিল দূরে -- শালের বনে আলো -আন্ধারির বুকে রঙ ছড়িয়েছে আগুনপারা । পাতার খসখসানি শব্দে চমকাই গিল , টুসুর পানে ভেলে বলল -- এমন কেন হল ? তুমি আমার কে বল ?

ই কিমন কথা ! টুসুর মুখে কোন রা নাই , সে তখন অন্য কিছু ভাবছিল । ঝিরঝির করে বাতাস বইছিল , থিরথির করে গাছের পাতা কাঁপছিল ,বহুদূর থেকে মাদলের বোল ভেসে আসছিল ।এ কেমন ঘোর ! অন্য কুনদিন হলি সিও ভেসে যেত মাদলের বোলে বোলে কোমরে হাত দিয়ে তালি তালি পা মিলাইয়ে । আজ কেনে পা সরে না । 

'তুমি এই মহুল বনের সাঁঝবাতির মতন সুন্দর , তোমাকে এখানে যেমন মানায় ,সেই শহরে তোমায় মানায় না । তুমি আমার কেউ ছিলে , না হলে এত আপন মনে হচ্ছে কেন ? আমি তোমাকে নিয়ে যাচ্ছি না কোথাও। তুমি এইখানে থেকো ছবির মত সুন্দর, আমার বুকের মাঝে ।এর নাম ভালবাসা ।'

প্রতিবার ফাগুন আসে, শাল পিয়ালে রঙ জমে আর বুকের ভিতর উথাল পাথাল টুসুর। দুটি চোখ পথের পানে আকুল হয়ে ফেরে -- আরও ইকবার ইসো ভালবাসা । অস্পষ্ট হয়ে আসে দিনের আলো -- দূরে ময়ূর পাহাড়ে সাঁঝবাতি জ্বলে, মাদল বাজে, বাজে নাচের বোল আর বুকের মাঝে দ্রিম দ্রিম শব্দ ।



Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.