x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৩, ২০১৭

কোয়েলী ঘোষ

sobdermichil | মার্চ ২৩, ২০১৭ | | মিছিলে স্বাগত
ইমন ফাগুন মাসে --
ফাগুন মাস এলি পরে টুসু হলুদ পারা কাপড় পড়ি হুই লদীর ধারে ছমক ছমক করি মল বাঁজায়ে যায়। যখুন ফাগুনের রঙ লাগে পলাশ বুনে। টুসুর খোঁপার চুড়োয় লাল ফুল, কাজলপারা চোখ কারে খুঁজি বিড়ায় । সি বারে ইমনি এক ফাগুন মাসে এক ফটক তোলা বাবু এইছিল । বনের পথ ধরি টুসু তখন ছাগল চড়ায়ে ঘরকে ফিরছিল । 

'আরে দাঁড়াও দাঁড়াও -- হাউ সুইট ! নাইস ! বিউটিফুল ! '

টুসুর হাতে লাঠি , সি দাঁড়াইয়ে গিল । ওমনি আলো ঝলকাই উঠলো ।

বাবু ছেলে হেসে কইল -- 'তোমার দুটো ছবি নিলাম । কি সুন্দর তুমি --এই প্রকৃতির মাঝে তুমি ! আমি ওই বাংলোয় কাল এসেছি । এই জঙ্গল কি একটু ঘুরে দেখাবে ?' 

'পারব লাই বাবু , ঘরে মিলাই কাজ পড়ে । বাপের লেগে ভাত রাঁধব ।'

টুসু পলাইয়া বাঁচল বটে তবু ঘরের কাজ করতি করতি বার বার মন উথাল পাথাল । বিকেল থাকতি আবার মহুল বনে দিখা হল সেই ফটো বাবুর সাথে , একলা উদাসপারা ভেলেছিল দূরে -- শালের বনে আলো -আন্ধারির বুকে রঙ ছড়িয়েছে আগুনপারা । পাতার খসখসানি শব্দে চমকাই গিল , টুসুর পানে ভেলে বলল -- এমন কেন হল ? তুমি আমার কে বল ?

ই কিমন কথা ! টুসুর মুখে কোন রা নাই , সে তখন অন্য কিছু ভাবছিল । ঝিরঝির করে বাতাস বইছিল , থিরথির করে গাছের পাতা কাঁপছিল ,বহুদূর থেকে মাদলের বোল ভেসে আসছিল ।এ কেমন ঘোর ! অন্য কুনদিন হলি সিও ভেসে যেত মাদলের বোলে বোলে কোমরে হাত দিয়ে তালি তালি পা মিলাইয়ে । আজ কেনে পা সরে না । 

'তুমি এই মহুল বনের সাঁঝবাতির মতন সুন্দর , তোমাকে এখানে যেমন মানায় ,সেই শহরে তোমায় মানায় না । তুমি আমার কেউ ছিলে , না হলে এত আপন মনে হচ্ছে কেন ? আমি তোমাকে নিয়ে যাচ্ছি না কোথাও। তুমি এইখানে থেকো ছবির মত সুন্দর, আমার বুকের মাঝে ।এর নাম ভালবাসা ।'

প্রতিবার ফাগুন আসে, শাল পিয়ালে রঙ জমে আর বুকের ভিতর উথাল পাথাল টুসুর। দুটি চোখ পথের পানে আকুল হয়ে ফেরে -- আরও ইকবার ইসো ভালবাসা । অস্পষ্ট হয়ে আসে দিনের আলো -- দূরে ময়ূর পাহাড়ে সাঁঝবাতি জ্বলে, মাদল বাজে, বাজে নাচের বোল আর বুকের মাঝে দ্রিম দ্রিম শব্দ ।



Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.