x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৭

উদয় শংকর দুর্জয়

sobdermichil | ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৭ | | মাত্র সময় লাগবে লেখাটি পড়তে।
উদয় শংকর দুর্জয়
 পরাগ মাখা শাশ্বত বিকেল    

.....তবু
শীত ঝরা বিকেল গুলো অন্যরকম ছিল, বসন্ত আগমনী ভাব ছিল। দুমড়ে মুচড়ে যাওয়ায় পলাশ পরাগ - উড়তে উড়তে রাজপথ পেরিয়ে যেতে চাইলে - এক ঝাঁক শকুন শ্যেন দৃষ্টি ছড়ায়। বাতাসের শরীরে আটকে যায় তাপের দগ্ধ ছোঁয়া।

এখন ভোর হলে নিঃসঙ্কোচে বেরিয়ে পড়ে মুঠো ভরা ফুলেল শৈশব, মায়াবী ঘাসের রং মেখে হেঁটে যায় স্নাত শিশির। প্রভাত ফেরীর সুর গুঞ্জন আত্মার শ্রান্তি গুলো লিখে রাখে আরেকটি অধ্যায়ের সৃজনলিপি।

অধ্যায় পার হতে হতে পাণ্ডুলিপি খুঁড়ে বেরিয়ে পড়ে শাশ্বত ইতিবৃত্ত। মুঠোভরা সূর্যগুড়ো উড়ে যায় শ্রান্তির চূড়োয়। অবনত মনের দেয়াল সাদা বক ছড়িয়ে দিয়ে যায় প্রশান্তির হিমেল আলোছায়া।  



 অভিশপ্ত বুলেটের বারুদ পোড়া হৃদপিণ্ড 

এখানে পলাশের পরাগ মাখা স্মৃতির বর্ষণ অবিরাম
কোলাহল থমকে গ্যাছে, স্তব্ধ পাখি কলরব, অস্তমিত দীপ
দপ করে জ্বলে ওঠে, অভিশপ্ত বুলেটের বারুদ পোড়া হৃদপিণ্ড।

কার্জন এর দেয়ালে বোনা অক্ষরের গাঁথুনি, একাডেমী চত্বর জুড়ে
নির্ভুল বানান ইতিহাস, অপরাজেয় এর পাদদেশে রঙ শিল্পের
শেষ আঁচড়। সেই রণবাদ্যে এখনো ঘরের ফেরার বিজয় সুর বিতান।
শ্লোগানে শ্লোগান করিডোর থেকে আকাশ ফুড়ে মহাকাশে, তন্ত্রীতে তন্ত্রীতে
ধাবমান রক্তে মুক্তির নিশান।

আমরা আসছি
প্রতিটি ফুলে থাকবে শ্রদ্ধার অমিয় শব্দ বুনন,প্রিয় আত্মিক সংলাপের প্রতি স্পর্শে
থাকবে রৌদ্রজ্জ্বল প্রগাঢ় বিশ্বাস, স্নাত স্মৃতির দূর্বাদলের শরীর চোষে
শপথের ব্যানারে লেখা থাকবে সঠিক দলিল পত্র। পলকে পলকে
থাকবে প্রতিশোধের রুমাল মোড়া অনল পাপড়ি।
কণ্ঠে ঝরবে দুর্নিবার বারুদের তপ্ত উপখ্যান।

আমরা আসছি
শুভ্রতা মাখা রূপোলী নগরের মিছিলে মিছিলে, ঐতিহ্যের নক্সা তোলা
লাল পেড়ে শাড়িতে, শোকের চিঠি বুক পকেট, কপালে রক্ত মাখা কাপড়,
অশুভ শক্তির বুকে কাঁটা তার আর শকুনের চোখে কালো পিচ ঢেলে
বীর দর্পে আমরা আছি।




Comments
0 Comments
 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.