x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৭

রূপক সান্যাল

sobdermichil | ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৭ | | মিছিলে স্বাগত
রূপক সান্যাল
 উল্লাসনগরী 

 উল্লাসনগরীতে এখন আলো জ্বলছে
                                    একশ আটটা
শরীরে এতটুকু রক্ত নেই বলে আমার খুব
                                    লজ্জা করছে
সব রক্ত মিশে আছে ধুলোয়

এখানে সন্ধের পর কোন যানবাহন নেই
ট্রেনের কামরাগুলো ফাঁকা, তবু ঠিক ফাঁকা নয় –
তিনটে কুকুর শুধু বসে আছে, তাদের মুখে
                                  চোদ্দ টুকরো মাংসখন্ড –
স্তনের আথবা জঙ্ঘার আথবা ...
                                  গন্ধ পাচ্ছ সুস্বাদের?

এই মরু-অরণ্যে আমি বিছিয়েছি তাঁবু
আজও দেখিনি মানুষের চেয়ে কোন হীনতর জীব

রাস্তাগুলো গুটিয়ে নিচ্ছে কেউ, হয়তো
                                   ধোয়া-কাচার জন্য
এই সময়টুকু তবে কী পথহারা হয়ে থাকব?

 এই উল্লাসনগরীতে এখনো জ্বলছে আলো, ক্রমশ বাড়ছে
                                                       আলোর সংখ্যা,
আলো, শুধু আলো – উজ্জ্বলতার শেষ নেই বুঝি
কুলকুচি করা জলে ভরে যাচ্ছে নদী, মাঠ –
গোলাপী মাংসের কারবারিরা
           এক ফুঁ-এ নিভিয়ে দেয় জঠরের আগুন ...

তুমি অন্য কারো কাছে যাবার আগে
           আমাকে অন্ধ করে দিয়ে যাও


 যে আমাকে আশ্রয় দেবে বলেছিল 

তোমার ছুরি কোনদিন গোলাপ হবে না
না হোক –
গোলাপের জন্য কাঙালপনা নেই আমার

যদি বিঁধতেই হয়,শেষবার বিঁধে যাও
বলে দিয়ে যাও, ওইখানে আদৌ কোন হৃদয় ছিল কী?
তুমি ফিরে যাও স্বপ্নে –স্বপ্নে ছিলে, স্বপ্নেই থাকো
সেখানে তোমার একক অস্তিত্বে কেউ হাত বাড়ায়না
এই কঠিন মাটিতে আমি প্রতিদিন
একা একা অরণ্যের খেউরি হওয়া দেখবো,
দিঘীর পাড় দিয়ে
একা একাই হাঁটবে আমার অবশিষ্ট সকাল —

কে যেন আশ্রয় দেবে বলেছিল, তার কাছে কোনদিন
                                                ফেরা হয়নি আর
এতদিন তোমাকেই মৃদু মৃদু খুঁড়ে গেছি—
ভাঁজে ভাঁজে বিবিধ চমক দেখেছি বারবার,
অথচ, যে আমাকে আশ্রয় দেবে বলে কথা দিয়েছিল –
তার কাছে কোনদিন ফিরে যাইনি আর ...

তোমার ছুরি কোনদিন গোলাপ হবে না—
সে না হোক, কিন্তু যে আমাকে আশ্রয় দেবে বলেছিল
তাকে আর কোনদিন দেখতে পাব না?



Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.