Header Ads

Breaking News
recent

সোমদত্তা কুণ্ডু চ্যাটার্জী

শব্দের মিছিলের ৫৫-তম সংখ্যায় রূপসী হেঁসেল


শব্দের মিছিলের ৫৫-তম সংখ্যায় রূপসী হেঁসেলের তরফ থেকে প্রতিবারের মত আমরা আবার হাজির। সদ্য পেড়িয়ে যাওয়া পৌষের  গন্ধে হাড় হিম হিম মাঘে যদি পিঠে-পায়েসের গন্ধে ম ম করে আপনার-আমার হেঁসেল তবে মন্দ কি? এই ভাবনা মাথায় রেখেই আমি সোমদত্তা রূপসী হেঁসেলের পক্ষ থেকে আপনাদের জন্য হাজির করলাম পিঠে-পায়েসের তিনটি পদ। রান্নাগুলি শিখতে এবার আমি পৌঁছে গেছিলাম দুর্গাপুরের রূম্পা সিনহা দিদির হেঁসেলে। দিদির কাছ থেকে পেয়ে গেছি তিন-তিনটে সহজ পিঠে-পায়েসের রেসিপি। 
১-রাঙা আলুর রস বড়া।
২-কড়াইশুঁটির ভাজা পিঠে।
৩-চালের পায়েস। 

উপরের তিনটে রেসিপি অবশ্যই জানব। তার আগে আসুন আমরা রূম্পা সিনহা দিদির সম্পর্কে জেনে নিই দু-চার কথা। দুর্গাপুরের গৃহবধূ রূম্পা সিনহা। জন্ম,লেখাপড়া এবং বিয়ে এই শহরেই। বর্তমানে গৃহবধূ। দিদির সখ জানতে চেয়ে জানতে পেরেছি দিদির একমাত্র সখ নাচ। এছাড়াও সংসার সামলে দিদি গান শোনেন, পরিবারের সকলের জন্য বিভিন্ন ধরনের সুস্বাদু রান্নাও করেন। আবার অবসরে  স্বামী এবং ছেলের উৎসাহে ফেসবুকেও নজর রাখেন। 

এবার চলুন চটপট চোখ রাখি রান্নার রেসিপিগুলোতে।


 রাঙা আলুর রস বড়া 

উপকরণ- সাদা তেল। ঘি। সেদ্ধ করে চটকে নেওয়া রাঙা আলু। চাল গুঁড়ো। খোয়া ক্ষীর গুঁড়ো করে নেওয়া। বড় এলাচের দানা। কোরানো নারকেল। কুচানো কাজু বাদাম। কুচানো কিসমিস। এবং নলেন গুড়।
রাঙা আলুর ভাজা পিঠে

পদ্ধতি- পুর তৈরির জন্য প্রথমে একটি পাত্রে কাজু,কিসমিস কুচি,নারকোল কোরা,খোয়া ক্ষীর একসাথে মেখে পুরটি তৈরি করতে হাবে। এরপর অন্যপাত্রে সেদ্ধ করা রাঙা আলু,চালের গুঁড়ো,বড় এলাচের দানা এবং প্রয়োজন মত গরম জল দিয়ে একসাথে মেখে মণ্ড তৈরি করতে হবে। এই মণ্ডের মধ্যে অল্প পুর দিয়ে দিয়ে পিঠের আকারে গড়ে নিতে হবে। কড়াইতে সাদা তেল এবং ঘি একসাথে গরম করে পিঠে গুলো ভাজতে হবে লাল হওয়া অবধি আঁচ কমিয়ে এবং বাড়িয়ে ভেজে নিতে হবে। 

সব শেষে ভাজা পিঠে গুলোর মধ্যে গুড় দিয়ে মিনিট পনেরো ভিজিয়ে রাখলেই তৈরি রাঙা আলুর ভাজা পিঠে। 




 কড়াইশুঁটির ভাজা পীঠে 

উপকরণ- চাল গুঁড়ো। নুন। গোলমরিচ গুঁড়ো। জায়ফল গুঁড়ো। সেদ্ধ করা কড়াইশুঁটি। গুঁড়ো করা ক্ষীর। নলেন গুড়।

কড়াইশুঁটির ভাজা পিঠে 

পদ্ধতি- মণ্ড তৈরির জন্য চালগুঁড়ো,নুন,গোলমরিচ,জায়ফলগুঁড়োর সাথে পরিমাণ মত গরম জল দিয়ে একসাথে মেখে নিতে হবে।

 এরপর সেদ্ধ করা কড়াইশুঁটি,নুন,গোলমরিচগুঁড়ো,জায়ফলগুঁড়ো,ক্ষীর এবং সামান্য নলেন গুড় দিয়ে তৈরি করে নিতে হবে পুর। এরপর ভিতরে পুর দিয়ে পিঠে আকারে গড়ে নিতে হবে। সাদা তেল এবং ঘি একসাথে গরম করে ভেজে নিলেই তৈরি কড়াইশুঁটির ভাজা পিঠে। 



 চালের পায়েস 

উপকরণ- গোবিন্দভোগ চাল (আধ ভাঙা করে গুঁড়ো করা) এক কাপ। নারকেল কোরান। পরিমাণমত চিনি। অল্প ঘি। দুধ এক কেজি। (কাজু-কিসমিস ইচ্ছে হলে স্বাদ এবং সাজানোর জন্য।)

পায়েস
পদ্ধতি - দুধ ফুটতে দিতে হবে। দুধ ভালো করে ফুটে গেলে আগে থেকে গুঁড়ো করে রাখা গোবিন্দভোগ চাল দুধের মধ্যে মেশাতে হবে। সামান্য ফুটে গেলে ওর মধ্যে নারকোল কোরা এবং চিনি দিয়ে নামিয়ে নিতে হবে। এরপর এতে কাজু-কিসমিস মিশিয়ে এবং সামান্য ঘি দিয়ে ঠাণ্ডা করতে রেখে দিতে হবে। বেশ তৈরি হয়ে গেল খুব সহজ চালের পিঠে। 


শব্দের মিছিলের আগামী সংখ্যায় আবার হাজির থাকার প্রতিশ্রুতি নিয়ে আমি সোমদত্তা এবারের মত বিদেয় নিলাম। শব্দের মিছিলের সকল পাঠককে অনেক ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করলাম আজকের  রূপসী হেঁসেল। 



কোন মন্তব্য নেই:

সুচিন্তিত মতামত দিন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.