x

প্রকাশিত

​মহাকাল আর করোনাকাল পালতোলা নৌকায় চলেছে এনডেমিক থেকে এপিডেমিক হয়ে প্যানডেমিক বন্দরে। ওদিকে একাডেমিক জেটিতে অপেক্ষমান হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ।​ ​দীর্ঘ সাতমাসের এ যাপন চিত্র মা দুর্গার চালচিত্রে স্থান পাবে কিনা জানি না ! তবে ভুক্তভোগী মাত্রই জানে-

​'চ'য়ে - চালা উড়ে গেছে আমফানে / চ'য়ে - কতদিন হাঁড়ি চড়েনি উনুনে / চ'য়ে - লক্ষ্মী হলো চঞ্চলা / চ'য়ে - ধর্ষিতা চাঁদমনির দেহ,রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলা।

​হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষটি লালমার্কার দিয়ে গোল গোল দাগ দেয় ক্যালেন্ডারের পাতায়, চোদ্দদিন যেন চোদ্দ বছর। হুটার বাজিয়ে শুনশান রাস্তায় ছুটে যায় পুলিশেরগাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স আর শববাহী অমর্ত্য রথ...। গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেকটা জল, 'পতিত পাবনী গঙ্গে' হয়েছেন অচ্ছুৎ!

এ কোন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

সমীরণ চক্রবর্তী

রবিবার, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৬

বিদিশা সরকার

sobdermichil | ডিসেম্বর ২৫, ২০১৬ | | মাত্র সময় লাগবে লেখাটি পড়তে।
বিদিশা সরকার

বিশেষ বিশেষ 

১।

আধখানা আপেলের মত
আধখানা চিঠি
যাবজ্জীবনের মেয়াদ গুনছে

২।

চাঁদের আলোয় আঁকছিল ঘর,
আর
একটা সরু নদী।
সন্তান সন্ততি ঘুমে কাদা।
জারোয়া হাওয়ায় মাতাল বিলাসবাবুর
বাড়ির মত নয়
একটা ঘর আর একটা সরু নদী
রাত জেগে বসে থাকে
বিশ্বাস করতে পারছে না কেউ কারো কে

৩।

এই আনচানগুলো বেশ পরোপকারী
স্বাস্থ্য সচেতনও
ভিকট্রি স্ট্যান্ডের ওপর তিনটে মেডেল রেখে গেছে
লক্ষ্মী সরস্বতী

৪।

যে মানুষটা বেগন স্প্রে গিলে নিয়েও এখনও বেঁচে
যে মানুষটা যথার্থ প্রেমিক হতে চেয়ে
বরযাত্রীদের আপ্যায়ন করেছিল
তার দৃষ্টিতে সেই আপ্যায়ন এখনও রয়ে গেছে

৫।

সিলিকন বুকে আপত্তি না থাকলে
পাঁচমাথার মোড়ে খুঁজে নিন।

৬।

রেক্টামের ভিতর দিয়ে ঢুকে যাচ্ছিল যারা
তারা কবিতার বিষয় নয়,
আসলে কবিতার বিষয় উত্তরণ


চাঁদিয়াল

দেখা হয় হৃদের কিনারে...
শেষ বিকেলের ডানা ছুঁয়ে
হাই ভোল্টেজ তারে
ফিঙের সংসার দোলে
ডুবে যাওয়া কার একগুঁয়ে

উড়াণ খরচ করে
দ্বাদশী চাঁদের বাঁকা ভুরু
তবুও খরচ হই
তবুও খরচ হও
শহুরে ভিড়ের ভবঘুরে --

আকাশী রঙিন কথা,
কথা বিনিময়ে কী তুখোড়!
ছুঁয়ে ছুঁয়ে ফিরে যাওয়া
যদিও একটু পাওয়া
একা একা শুধু রাত জাগা

কখন ঘুড়ির ভিড়ে
পেটকাটি নীল ছিঁড়ে
এক টুকরো যামিনী বিভোর,
সেই ছেঁড়া সেই রঙ
দোয়াত উপুর করে
ছুপিয়েছে আকাশ নগর।

বিদ্যাপতির ঘরে অনুনয় বাস করে
বাতায়নে সাঁঝ আসে ফিরে,
ফেরার কথারা সব
আকাশ নাটিকা দেখে
আমি কাঁপি ধীর সমীরে -





Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.