x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

রবিবার, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৬

অরুণিমা চৌধুরী

sobdermichil | ডিসেম্বর ২৫, ২০১৬ | | মিছিলে স্বাগত
অরুণিমা চৌধুরী

"অনিন্দ্য" অসুখ - 

মনখারাপের বড্ড বেশি ঋণ মনখারাপের
অনেকখানি দ্বিধা
সন্ধ্যেবেলা অল্প হিমে পোড়ে হাড়কনকন গল্পগুলোর ধাঁধা

এইযে এতো ডাকছি কাছে তোকে এইযে হঠাৎ হারিয়ে ফেলেছি,
এইযে প্রবল বাসতে গিয়ে ভালো উটকো ভুলে ঝগড়া করেছি

ভাল্লাগেনা সন্ধ্যেবেলার সাজ, কেন বলতো পরবো  সে লাল টিপ
তুইতো জানিস বাসছি ভালো তোকে
তাই চেয়েছি আলাদা এক দ্বীপ

তাই চেয়েছি  বুকের কপাট জুড়ে রাত্তির নয়, নয় সে অচিন  ভোর
পুরুষালি কোলটি জুড়ে অনি হিংসুটি এই আমিই কেবল তোর

মনখারাপের সন্ধ্যেগুলো বড়ো শূন্যচোখে তাকায়, দেখি জল
হিম পড়েছে ঠান্ডা একা হাতে
আজ কি কোথাও বৃষ্টি হলো,বল!

আমার দুচোখ হাকুচ তেতো হিম কুয়াশার দেশ
হাল্কা ডিও'র গন্ধটা বেশ  মিষ্টি চুমুর রেশ
ভাল্লাগেনা কিছুই এখন তুই কাছে নেই তাই
রাগছি তবু ঠোঁটটা যে তোর অল্প একটু চাই

মনখারাপ আর তুই ভালো নয় এটাও ভীষণ ঠিক
হারিয়ে গেছিস অনি নামে সর্বজনীন প্রেমিক
তবুও অবুঝ সন্ধ্যেগুলো জ্বালায় ছাতা বড়ই
বুকের ভিতর এখন আমার  কষ্ট জড়সড়

আজ অবেলায় বৃষ্টি এলো অল্প একটু ঝড় ও
সেই ঘাটে কি নৌকো বাঁধা যেমন ছিলো কালও
 ছইয়ের ভিতর তুই,  হ্যারিকেন, সন্ধ্যে টলোমলো
সেইখানে কার বুকের উপর প্রেম ঠিকানা পেলো

হাতটা কোথায় আজ রেখেছিস অন্য সে  কার কাঁধে
অন্য সে কার ঠোঁট দুজোড়া আজ রেখেছিস বেঁধে
জানিস আমার কান্না পাচ্ছে ঝগড়া মাঝেমাঝে
ভাল্লাগেনা ভালবাসা,ধুর ছাতা তুই বাজে

এখন আমার নাকছাবিটাই একলা আমায় ছুঁয়ে
ডাকছে আমায় "শুনছো সোনা! রাই সোহাগি  মেয়ে!"
জল ছুঁড়ছে হাজার ফোঁটায়, নাচছে আমায় ঘিরে
হারায় যে জন  সমুদ্রঝড়, আর কি আসে ফিরে

হয়তো সে জন তুই সোহাগি, আদর করে  বকেও
হয়ত ভীষণ আহ্লাদী সে  জাপটে থাকে তোকে
একলা আমিই  মাখছি কালো হাজার গন্ডা ভুলে
হঠাৎ করেই  হারিয়ে গেছিস অচিন দ্বীপের চুলে

ভাল্লাগেনা মনখারাপের পাঁচ'টা ছ'টা ঋণ
ভাল্লাগেনা বলতো কেন গোপন দুই আর তিন
টুকরো আমার ছড়িয়ে ফেলা ছবি এবং চুলে
এখনো তোর নামটা ভীষণ স্পষ্ট যে জ্বলজ্বলে

সারাটা দিন বিষাদ কালো শূন্যতা আর জল
এই অবেলায় হঠাৎ কেন বৃষ্টি এলো  বল!
সারাটা দিন  ডুবোপাহাড় আঘাতগুলোর ভারে
"আমি তোমায় স্পর্শ করি জলের অধিকারে।"






Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.