Header Ads

Breaking News
recent

শুক্লা মালাকার

শুক্লা মালাকার


পাহাড় পদাবলী

১।

এই অ-মানুষ প্রান্তরে একলা চাঁদ
লক্ষ তারার কুঁচি জড়ানো আকাশ ছুঁয়ে ছুঁয়ে
উথাল পাথাল,
পাথরে পাথরে নাচে ঝর্ণা
আমি একা বসে উন্মাদ।

অজানা পথের বাঁকে
ফেলে এসেছি যে দু-চোখ
হয়তো সে খুঁজে পেয়েছে দিক
আমি দিকভ্রান্ত সৈনিক।
নিস্তব্ধতার শব্দের মাঝে
খেলা করে ব্রহ্মাণ্ডের নীল।

একদা হয়েছে যৌবন তবুও
এভাবেই বেঁচে থাকা
সময়ের কাছে হাত পেতে
ভালো লাগা খুটে খাওয়া
যদি মেঘ গায়ে লাগে
বুকে তাই ভিজবার ত্রাস
নেই ভোরের আলোয়
বিগত রাতের কলোচ্ছাস।
     

২।

এই শিরশির প্রগাঢ় নির্জনতায়
দুঃখী হতে কার ভালো লাগে?
সময়ের তলানিতে পরে থাকা জীর্নতারাও
এখানে মুক্তি পায়,
তড়িঘড়ি হয় সবজে উচ্ছল।

অথচ এক মৃত প্রেম
এলিয়ে রেখেছে তার দেহ
শোককাতর সিডি’র শরীরজোড়া
শুধু মৃত ভালোবাসা
একা একা দেখেছে পাহাড়, উপত্যকা
শীত কাতুরে বরফ
কোন এক শহরজাতকের
দীর্ঘ হাহাকার
বুকভরা দাবানল শান্ত করেছ কি মেঘ?

মনিদীপা মুখ ফিরিয়েছো কি?
দেখো! তোমার জন্য
বেঁচে আছে কটি কথা
‘নষ্ট করে দিও
কিন্তু তার আগে একবার চালিও’

ছন্দ ভাঙো রুপিন
মৃত সিডি, মৃত প্রেমিকের মন
বয়ে নিয়ে যেও।
     
          

কোন মন্তব্য নেই:

সুচিন্তিত মতামত দিন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.