x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৬

অনুপম চ্যাটার্জী

sobdermichil | সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৬ | | মিছিলে স্বাগত
অনুপম চ্যাটার্জী





আনুমানিক চালচিত্র যখন ভালোবেসেছে পট তখন প্রতিমার চাহিদাগুলির ভিন্ন মতামত , চৌষট্টি কলার ছন্দ হরণকারী মোনালিসা কিংবা স্তন্যপায়ীর বিবর্তনীয় আশা … 
শূন্যস্থান পূরণের জন্য হাওয়ার পাণ্ডুলিপি কাটে প্রজাপতির সঠিক সিন্ধান্ত গ্রহণে ব্যর্থ ডানার মানসিক সঞ্চালন … হে অবিনাশ তাই কি তোমার ভ্রু-র মধ্যে অষ্টাদশ কিংবা ত্রয়োবিংশ শতাব্দীর সন্ধিক্ষণ ? 

মায়া কে " যাই " বলে, শেষ প্রসাদের অঙ্ক মেলাতে গিয়ে যখন পানপাতার চোখ মনে পড়েছিল, তখন পটে আঁকা ছিল বাস্তব শাপের জিভ । বিরোধাভাস সর্বমঙ্গলময়-জাগরুক সময়কে ভালোবাসা-সংযমী-শিব । উঠল … কোমর বাঁকল , যেন রাজনৈতিক পরিব্রাজকের চাহিদা ... মাছ থেকে মানুষের শিরদাঁড়া... হোক না জীবন ... উচ্ছিষ্ট-মধ্যবিত্ত-কেন্দ্রীয়-অর্থনৈতিক মন ! 

সময়ের আয়নাটা সংবাদপত্রে, ডিজিটাল পার্থিবকরণ; নক্ষত্রের খাদ্য-শৃঙ্খলে মাঝে মাঝে উঁকি মারে এলিয়েন্স... পালনকর্তার কৃষ্ণ-আনন । 

আনন গ্রাম্যতায় সাইকেল চালায় বেকারত্ব। একটা ঢেকুর _______ যাতে ছিল কৃষকের কোদালের শোষণ বাড়ন । তবু শান্তিময় প্যাডেলে বেকারত্ব এবং ট্রাক্টর টালমাটাল করে ... গুদামের গুপ্ত শিহরণ । 

'মেঘনাদ বধ’ -এ নারীর মুক্তিটা ব্যাঙের জিভের মত। হয় তো বা ত্রয়োবিংশ শতাব্দীতে পুরুষের আত্মায় বর্ণসংকর-ক্ষত আর নারীরা চিরদিনই প্রকৃতির মত । গ্লোবালাইজেসনে ভ্রমরের আশাবাদী পদ্মের মতো--- মত, পথ ঠিক যত । 

অবিনাশ কি মেষ ? 

আত্মায় ফিরে এলে মিলিয়ে যায় মত , মড়ে স্মরণ , আহত হয় দিকচক্রবাল ; শূন্যবিজ্ঞানের জন্য ভাবে কর্মঠ বিজ্ঞানের সাম্যবাদ ... রাষ্ট্র-পাশায় ক্ষমতা বা রক্ত নয় , মানবের মানবিক আস্বাদ...প্রয়োজন ... তবে বেশ , আনুমানিক চালচিত্র যেন ভালোবাসতে পারে পটকে এবং প্রতিমার চাহিদাগুলির যেন একমত হয় , তাহলে মানসিক সঞ্চালন অবশ্যই করবে সন্ধিক্ষণ জয় । 

হে ভারতভাগ্যবিধাতা ... 
জয় হোক । জয় হোক । জয় হোক ।




Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.