x

প্রকাশিত | ৯৪ তম মিছিল

কান টানলেই যেমন মাথা আসে, তেমন ভাষার প্রসঙ্গ এলেই মানুষের মুখের ভাষার দৈনন্দিন ব্যবহারের কথাও মনে পড়ে যায়, বিশেষত আজকের দিনে। ভাষা দিবস মানেই শুধু মাতৃভাষা নিয়ে আবেগবিহ্বল হয়ে থাকার দিন বুঝি আজ আর নেই!

কেননা সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাঁরা মাথায় বসে আছেন, বিশেষত যাঁরা রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় ক্ষমতাভােগী এবং লােভী, তাঁদের মুখের ভাষা এবং তার প্রয়ােগ আজ ঠিক কতটা শিক্ষণীয় এবং গ্রহণীয় সেটা শুধু ভাবার নয়, রীতিমতো শঙ্কার এবং সঙ্কটের।

সবই কি তবে মহৎ ভাবনা, অনুপ্রেরণার জোয়ার? নাকি রাজনৈতিক কারবারিরা 'সুভাষিত' শ্রবণাতীত বয়ানে নিজেদের অক্ষমতার মদমত্ত প্রকাশ করছেন? সাধারণ ছাপােষা মানুষ বিস্ফারিত চিত্তে এই ভাষাসন্ত্রাস,এই ভাষাধর্ষণ দেখতে শুনতে ক্লান্ত। এর থেকে উত্তরণের উপায় এখনও অবধি কোনাে ভাষা দিবস দেখাতে পারেনি। এবারের ভাষা দিবসের কাছেও কি সেই উপায় আছে? নাকি এই খেলা হবে, চলবে ... মেধাহীন গাধাদের দৌলতে?

চলুন মিছিলে 🔴

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৬

অনন্যা ব্যানার্জী

sobdermichil | সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৬ | | মিছিলে স্বাগত
অনন্যা ব্যানার্জী


"শরতে আজ কোন অতি এল প্রাণের দ্বারে। আনন্দ গান গা রে হৃদয় আনন্দ গান গা রে ।"

ঘনঘোর বর্ষা কাটিয়ে মেঘ রৌদ্রের লুকোচুরি খেলায় প্রকৃতিতে শরৎ এসে হাজির হলেই বাঙালীর ঘরে ঘরে যেন আনন্দের আলো ছুঁয়ে যায় । উৎসবে আনন্দে ভরে ওঠে বাঙালীর সত্তা । কবির সুরে সুর মিলিয়েই বরণ করে নেই আমরা প্রিয় শরৎকে ।

শরৎ - শরৎ মানেই কাশ, শরৎ মানেই শুভ্রতা। শরৎ মানেই শিউলি, শরৎ মানেই উৎসব। আমাদের কাছে উৎসব শুধুমাত্র ধর্মের আগল নয় , উৎসব আমাদের কাছে মানববন্ধনের, উৎসব আমাদের কাছে প্রীতি বিনিময়ের । উৎসব -যার প্রধান উপলক্ষ শুধুমাত্র মানুষ । রংবাহারী আলোর রোশনাই নয় উৎসব জুড়ে থাক প্রতিটি মানুষের জীবনে । 

এবারের গানঘর অন্যবারের তুলনায় একটু ভিন্ন, একটু সনাতনী । বাংলা সাহিত্য ধারায় শাক্ত পদাবলী এবং আগমনী ও বিজয়া ধারার পদ গুলি যেমন এক গুরুত্বপূর্ণ স্থান অধিকার করে আছে, তেমনি বাংলা সঙ্গীতে এই পদগুলি সুরারোপিত হয়ে এক বিশেষ ধারা রূপে আত্মপ্রকাশ করেছে । সনাতনী সঙ্গীত ধারায় টপ্পা ঠুমরীর পাশাপাশি এই পর্ব উল্লেখ্য । 

এই পদগুলির ইতিহাস ঘাঁটলে আমরা দেখতে পাই যে তৎকালীন বাংলাদেশের সামাজিক, রাজনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে সাধারণ মানুষ ধর্মের আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছিল, আর সাহিত্য , সঙ্গীতে তার প্রভাব ছিলো অনিবার্য । পরবর্তী যুগে এই গানগুলি তার মাধুর্য নিয়ে বাঙালীর মননে প্রভাব বিস্তার করে । বাউলকন্ঠে আগমনীর সুর দিয়েই সূচনা হয় বাঙালীর উৎসবের ।

এবারের গানঘর সংখ্যা সাজালাম আগমনী পর্বের কিছু গান দিয়ে । উৎসবের আনন্দ প্রত্যেকের জীবনে বয়ে নিয়ে আসুক শুভ বার্তা উজ্বল আলোর মত , এই শুভ কামনায় প্রতিবারের মত এবারেও সাথে থাকলাম অনন্যা ।


এবার আমার উমা এলে আর ...  


জাগো মা ভবানী ...  


ত্রিনয়নী দুর্গা ...  


আশ্বিনের শারত প্রাতে ...  


জাগো ... তুমি জাগো ...  


যাও যাও গিরি ...  


গিরি একি তব বিবেচনা ...  


ননদিনী বল নাগরে ...  


মহাবিদ্যা আদ্যাশক্তি ...  


হে চামুন্ডে ...  


মা ...  


ওগো আমার আগমনী ...  





Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.