x

প্রকাশিত বর্ষপূর্তি সঙ্কলন

দেখতে-দেখতে ১০ বছর! শব্দের মিছিলের বর্ষপূর্তি সংকলন প্রকাশের সময় এ খুব অবিশ্বাস্য মনে হয়। কিন্তু অজস্র লেখক, পাঠক, শুভাকাঙ্ক্ষীদের সমর্থনে আমরা অনায়াসেই পেরিয়ে এসেছি এই দশটি বছর, উপস্থিত হয়েছি এই ৯৫ তম সংকলনে।

শব্দের মিছিল শুরু থেকেই মানুষের কথা তুলে ধরতে চেয়েছে, মানুষের কথা বলতে চেয়েছে। সাহিত্যচর্চার পরিধির দলাদলি ও তেল-মারামারির বাইরে থেকে তুলে আনতে চেয়েছে অক্ষরকর্মীদের নিজস্বতা। তাই মিছিল নিজেও এক নিজস্বতা অর্জন করতে পেরেছে, যা আমাদের সম্পদ।

সমাজ-সচেতন প্রকাশ মাধ্যম হিসেবে শব্দের মিছিল   প্রথম থেকেই নানা অন্যায়, অবিচার, অসঙ্গতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছে। এই বর্ষপূর্তিতে এসেও, সেই প্রয়োজন কমছে না। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরবর্তী বিভিন্ন হিংসাত্মক কাণ্ড আমাদের যথারীতি উদ্বিগ্ন করছে। যেখানে বিরোধী দলের হয়ে কাজ করা বা বিরোধী দলকে সমর্থন করার অধিকার এখনও নিরাপদ নয়, সেখানে যে গণতন্ত্র আসলে একটি শব্দের বেশি কিছু নয়, সেকথা ভাবলে দুঃখিত হতেই হয়। ...

চলুন মিছিলে 🔴

সোমদত্তা কুন্ডু চ্যাটার্জ্জী

sobdermichil | আগস্ট ১৫, ২০১৬ |
ruposhi

শব্দের মিছিলে রূপসী হেঁসেলের পক্ষ থেকে আমি সোমদত্তা কুন্ডু চ্যাটার্জ্জী মিছিলের ৫০তম সঙ্কলনে উপস্থিত হলাম   'নানারূপে নিরামিশ' রেসিপি নিয়ে। বিরিয়ানী খাবো,এগরোল খাবো, রবিবার মানেই খাঁসির মাংস চাইইই। আচ্ছা আমরা কখনও তাদের কথা ভাবি না কেন যারা নিরামিশ খেতে ভালোবাসে কিংবা খেতে হয়! তাদের কথা মাথায় রেখেই এবারের আয়োজনে অন্য স্বাদের নিরামিশ রান্না। দেখুন আপনাদের কেমন লাগে। মতামত জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।


আজকের প্রথম রেসিপিটি এসেছে বর্ধমানের তোশালী মিত্রে'র হেঁসেল থেকে। তোশালী রূপসী হেঁসেলের নিয়মিত সদস্যা। বেশ কিছু সখের সাথে রান্নায় অভিনবত্ব আনতে উনি পছন্দ করেন। ওনার বাকি সখ গুলির মধ্যে একটি অন্যতম সখ হলো নিজে হাতে তৈরী নানান ব্যাগ এবং আরও নানান জিনিস ।

প্রনালী ছবিসহ  চলুন জানা এবং শিখে নেওয়া যাক  তোশালী মিত্রর উপস্থাপিত ভিন্ন স্বাদের নিরামিশ রেসিপি।


পনির দিওয়ানি হান্ডি-

* পনির গুলো নুন জলে কিছু সময় ভিজিয়ে রেখে সাদা তেলে হাল্কা ভেজে নিয়ে আলাদা পাত্রে রেখেছি।

* তারপর সেই তেলে কুচানো পেঁয়াজ দিয়ে বাদামি করে ভেজে  তাহাতে রসুন বাটা আদা বাটা দিয়ে কষিয়ে শুকনো লঙ্কার গুঁড়ো, কাশ্মীরি মির্চ পাউডার, জিরে গুঁড়ো,ধনে গুঁড়ো দিয়ে কষিয়ে সামান্য জল দিয়েছি।

* একটু পর তারমধ্যে গোটা কাজু, কিসমিস, চিনি, কসুরি মেথি দিয়ে নেরে গ্যাস বন্ধ করে মশলা ঠান্ডা করেছি। এবার এই মশলাটা মিক্সি তে দিয়ে পেষ্ট করেছি।

* আবার কড়াই তে সাদা তেল দিয়ে এই পেষ্ট টা দিয়ে অল্প কষিয়ে দুধ দিয়েছি এক কাপ। এরপর ভাজা পনির গুলো দিয়ে কিছু সময় রেখে গ্রেভি ঘন হলে নামিয়েছি।






ruposhi
নানারূপে নিরামিশ..পর্বের দ্বিতীয় রেসিপি এসেছে বর্ধমানের রনিতা হাজরা হেঁসেল থেকে।  ঘরের নানান কাজে এবং রান্নায় খুব পটু। আমাদের রূপসী হেঁসেলের অনেক পুরোনো সদস্যা। আজ ওনারই শেখানো একটি নিরামিশ রেসিপি আমরা শব্দের মিছিলের সকল পাঠকের জন্য নিয়ে এসেছি। ওনার সখ জানতে চেয়ে জানতে পেরেছি, উনি গান শুনতে,বই পড়তে এবং নিত্য নতুন রান্না করতে পছন্দ করেন। আজ উনি আমাদের শেখাবেন- মুগ ডালের পূরণ পোলি। চলুন শিখে ফেলি চট করে।


রেসিপি - মুগ ডালের পূরণ পোলি

ডো এ লাগবে - ময়দা ৩/৪ কাপ, নুন ১ চিমটে, হলুদ ১ চিমটে, তেল ৩/৪ কাপ।

পুর এ লাগবে - মুগ ডাল ১ কাপ, গুড় ৩ কাপ, নারকেল কোরা আধ কাপ, এলাচ গুঁড়ো ১ চিমটে, ঘি আধ টেবিল চামচ।

ময়দায় নুন হলুদ ও তেল মিশিয়ে জল দিয়ে ভালো করে মেখে ৩-৪ ঘণটা ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে, শুকনো খোলায় মুগ ডাল ভেজে নিয়ে ৩০ মিনিট জলে ভিজিয়ে রেখে ডাল সেদ্ধ করে নিতে হবে।

এবার সেদ্ধ ডাল ,গুড়, এলাচ গুঁড়ো,নারকেল কোরা একসাথে মিশিয়ে নিতে হবে।কড়াই এ ঘি গরম করে ঐ ডালের পুরটা দিয়ে কিছুক্ষন নেড়ে নামিয়ে নিতে হবে।মাখা ময়দা থেকে লেচি কেটে তাতে ডালের পুর টা দিয়ে রুটির মত বেলে নিতে হবে।

তারপর তাওয়া এ তেল দিয়ে দু পিঠ ভালো করে ভেজে নিতে হবে। খুশি মত সাজিয়ে পরিবেশন করো মুগ ডালের পূরণ পোলি।




নানারূপে নিরামিশ..পর্বের তৃতীয় রেসিপি এসেছে স্বাতী মিত্র'র হেঁসেল থেকে । রেসিপির নাম দেওয়ার আগে আসুন স্বাতীর সম্পর্কে দু-চার কথা জেনে নিই। স্বাতীর বাড়ি বিবেকানন্দ কলেজ রোড, বর্ধমান। পেশায়,শিক্ষিকা। ওনার সখ বলতে-অবশ্যই গল্পের  বই পড়া, গান শোনা, বিভিন্নরকম রান্না করা ও ভ্রমন।



নিরামিষ হার্ট-লেট-
উপকরন- 

আলুসেদ্ধ, গাজরকুচি, ক্যাপসিকামকুচি, গ্রেটেড ফুলকপি, কোচানো টমেটো, কাঁচা লংকাকুচি, ধনেপাতা কুচি। 
আমচুর পাউডার,গরম মশলা,গোলমরিচ,নুন ও চিনি,কর্নফ্লাওয়ার, খাবার সোডা,বিস্কুটের গুঁড়ো।


প্রণালী- 

* উপরের সব উপকরনগুলো (কর্নফ্লাওয়ার,খাবার সোডা ও বিস্কুট গুঁড়ো ছাড়া)  একসাথে ভালোভাবে মিশিয়ে ইচ্ছা মতো আকারে গড়ে নিতে হবে।

* এরপর কর্নফ্লাওয়ারের ব্যাটারে ডুবিয়ে বিস্কুট এর গুঁড়ো মাখিয়ে কড়াইয়ে ছাঁকা তেলে ভেজে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে গরম গরম ‘হার্ট-লেট’।

* সস্ ও কাসুন্দি সহযোগে জলখাবারে পরিবেশন করুন, নিরামিষ এই পদটি।






Comments
0 Comments

-

সুচিন্তিত মতামত দিন

পাঠক পড়ছেন

 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন


বিজ্ঞপ্তি
■ আপডেট পেতে,পেজটি লাইক করুন।
সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ | আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা
Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.