x

প্রকাশিত

অর্জন আর বর্জনের দ্বিধা কাটিয়ে উঠতে পারেনি বলেই মানুষ সিদ্ধান্তের নিরিখে দোলাচলে।সেখানে প্রতিবাদও ভঙ্গুর।আর যথার্থ প্রতিবাদের থেকে উঠে আসে টায়ার পোড়ার গন্ধ।আঘাত প্রত্যাঘাতের মাঝখানে জন্মদাগও মুছে যায়।সংশোধনাগার থেকে ঠিকানার দূরত্ব ভাবেনি কেউ।ভাবেনি হাজার চুরাশির মা’র প্রয়াণ কোন কঠিন বাস্তবকে পর্যায়ক্রমিক প্রহসনে রূপান্তরিত করেছে।একটা চরিত্র কত বছর বেঁচে থাকে ?কলম যাকে চরিত্রের স্বীকৃতি দেয় তেমন পোস্টমর্টমের পড়ও আরও কয়েকযুগ বাঁচিয়ে রাখতে পারে কলমই। অভয়ারণ্যেও ঘেরাটোপ! সেই আপ্তবাক্য -

“মানুষ নিকটে গেলে প্রকৃত সারস উড়ে যায়” – স্বভাবতই প্রশ্ন ওঠে – প্রকৃত সারসই তাহলে উৎকৃষ্টতর।

“মানুষ নিকটে গেলে প্রকৃত সারস উড়ে যায়” – স্বভাবতই প্রশ্ন ওঠে – প্রকৃত সারসই তাহলে উৎকৃষ্টতর।

ভাববার সময় এসেছে। প্রতিবাদটা কোথা থেকে আসে—বোধ ?মস্তিষ্ক ?মুঠো? না বাহুবল?

ছবিতে স্পর্শ করুন

শব্দের মিছিল

অতিথি সম্পাদনায়

বিদিশা সরকার

সোমবার, জুন ২০, ২০১৬

পবিত্র চক্রবর্তী

sobdermichil | জুন ২০, ২০১৬ | | মাত্র সময় লাগবে লেখাটি পড়তে।
pabitra

কথা

আমার-তোমার কথাগুলো প্রতি রাতে
ইতি টানে! তারপরের জাগতিক পরিভাষায় ফুটে ওঠে আবেগ থেকে ক্রমশ যান্ত্রিক আবেগ!
পারস্পরিক যুক্তির পরাকাষ্ঠায় আপাত নিরীহ সম্পর্কের
ভারসাম্য দুলতে দুলতে সৃষ্টি হয় শূন্যতা ;
শেষে অপঘাতে এক এক করে মৃত্যু !

খবরের কাগজের প্রতি পৃষ্ঠা পরে মোহিনী
নরখাদকের কাজল , স্তিমিত কলম হাঁকে!
কত যে মনের মৃত্যু ব্ল্যাকহোলের কবরে
ঘুমায়,কেই-বা জানে!
জানতে জানতে জানার স্বাদ বাড়ায় -
হৃদয়ের জঠর! তাই যে পরে থাকে -
হৃদয়ের প্রান্তে লোনা অশ্রু নয় ,শুধুই  বাষ্পীভূত টানাপোড়েনের নিঃশ্বাস !!



পরিমাপ 

উপস্থিতি স্বীকার নাই করতে পারো -
কিন্তু পরাজয়ের গ্লানি ধীরে ধীরে
যখন একটা একটা মুখোশ উন্মোচন
করছে - ঠিক তখন প্রশ্ন করো !

দৈর্ঘ্য - ইচ্ছা - অপেক্ষা - সময় -
কে কাকে দেয়? আপেক্ষিকতা দাম্ভিক ছাপ রাখতে আজও ভোলে নি! তবুও ,
তোমার কথা পুনরায় রাখলাম !

একটু আগে নরম শরীর নিয়ে জন্ম নিল
অনাবৃত ঘুঘু পাখী! ঠোঁটের ডগায়
মা পরম মমতায় খাদ্য নিয়ে অস্থির ;
অবাক করা আত্মবিশ্বাসে সঞ্চার
করলো সঞ্চিত খাদ্যকণা আগামীর
নরম গলায় ; হয়তো সময়টা সকলের
জন্য পোশাকের পরিমাপের মতো !

শ্রেণী সংগ্রামে ভিন্ন শ্রেণীর উন্মেষ !
সময়ের কাঁটাও আমার-তোমার
অপেক্ষার মানদণ্ড নানা হিসাবে লিপ্ত !
পারলে দিও পরিচয় ; আমার কুয়াশা-
পথরেখা উদাসী হাওয়ার দাপটে ছিন্ন !!




অসম্পূর্ণ নব্বই

কে বলেছে তোর কথা ভেবে
কলম আমার রাতের ঘুম ছেড়ে
বাঙময় হয় ? কে বলেছে ফালি
জমিতে বেলফুল শুধু তোর
অপেক্ষায় হাওয়ায কাব্য লেখে ?

কলমের তিলতিল করে মৃত্যু -
কত শব্দের সৃষ্টি ! নিষ্ঠুর হাতে
ছিন্ন ফুল , মন্দিরে পুষ্পবৃষ্টি ;
কোনটাই কারোরই নয় ,শুধু -
কিছুকাল খেলা,আর একপেশে
আঘাতের ভিন্ন ভিন্ন সমনাম !

অভিনয় ছাড়া জীবনের পথ রুদ্ধ ;
সাদা ট্যাবলেট ভাঙা ঘুম কেনে
কতবার , লুকিয়ে প্রতিনিয়ত !
পৃষ্ঠার বুক বার বার হয় ছিন্নভিন্ন ;
নরম আঘাতে দেখতে দেখতে
জন্ম নেয় কোণ এক নব্বই অসম্পূর্ণ !!





Comments
0 Comments
 

এই ব্লগটি সন্ধান করুন

Support : FACEBOOK PAGE.

সার্বিক অলঙ্করণে : প্রিয়দীপ ,আহ্বায়ক : দেবজিত সাহা

Website Published and © by sobdermichil.com

Proudly Hosting by google

Blogger দ্বারা পরিচালিত.