জাহাঙ্গীর খান ওয়ার্কার








 আধুনিক ক্রীতদাস


ল্যাম্প পোস্টার আলোয়
ভেসে যায় আধুনিক ক্রীতদাসের ঢুলু-ঢুলু চোখ
লেগেছে খ্রীষ্টমাস , নিউ ইয়ার, কার্নিভ্যালের
আলোক রোশনাই ধুম উৎসব !
চোখ ধাধিয়ে যায় !!!
মাতে রংয়ের ধারায়
গ্রাউন্ড জিরো,ম্যানহাটন, আটলান্টিক সিটি
মাতে অর্চাড, ব্রুকলিন, রোম , সিডনী |
যেনো মুছে গেছে, সভ্যতার পাতা হতে
পিঠের তারকা চিহ্ন ;
বর্ণ বৈষম্য নেই সংবিধানে !
একবিংশ শতাব্দীর ইতিহাসে ক্লাস হচ্ছে বেশ !
লজ্জায় ... লজ্জায় আমরা মাথার মগজ
ঠিকরে বেরিয়ে পড়ে
ওয়াসিংটন ডিসির পিচ ঢালা পথে ;
আমার চোখ থেকে ফিনকি দিয়ে বেরোয রক্ত
গড়িয়ে যায় আমস্টার্ডাম,লন্ডনের রাজপথে ;
অতঃপর শিল্প বিপ্লবের চাকায় পিষ্ট
খুঁজে পাওয়া পাজরের হাড়
খুঁজে নিয়ে আমার থেতলে যাওয়া মগজ , চোখ ;
যখন উঠে দাড়াই
আবছা আবছা চোখে তাকাই
লাইনের পর লাইন লাইন ,
দৃষ্টি-সীমানার শেষ অব্দি দেখি সারি সারি
আধুনিক ক্রীতদাস ;
বঙ্গীয় ডাক্তার চালাচ্ছে ট্যাক্সী ক্যাব
ইঞ্জিনিয়ার সেজেছে হকার, বেচছে সব্জী
একজন শিক্ষক স্বপ্নের দেশে যখন হোটেল বয়
নিউ ইয়র্ক, আটলান্টিক সিটি ,
ওয়াসিংটন ডি সি কিংবা হিথ্রোয় ;
আমি তখন বার বার মূর্ছা যাই
লাস ভেগাসের ম্যারিলিন মনরোর মূর্ছনায় |
জেগে উঠি আবার
দেখি... ভরে গেছে পৃথিবীর ল্যাবরেটরি
কম্পিউটারের মনিটর
মানব বিধ্বংসী মিসাইলের নকশায় ,
“ক্যান্সার নির্মূল”- প্রকল্পে লেগেছে
ধস, অর্থনীতিক মন্দার বাতাস ;
সমস্ত বিজ্ঞানী যখন দুরাচারী শাসকের পুতূল
আত্নম্ভর রাষ্ট্রের ‘আধুনিক ক্রিতদাস’ ;
আমি তখন ...
আমি তখন আমার কুড়িয়ে পাওয়া হাড়গোড়
পাঁজর, খুলি , চোখের মণি সম্মেলিত করি
সয়ংক্রিয় সুইচ চাপি
এটোমিক ব্লাস্টার দিয়ে উড়িয়ে দেই
নষ্ট পৃথিবীর কীট, আমার দেহ পল্লব ;
আর মিশে যাই ফেনায় ফেনায় অন্ধকারে , শুধুই অন্ধকারে ......।।


প্রবাসী 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.